advertisement
আপনি পড়ছেন

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত আফগানিস্তানে ত্রাণ সহায়তা দিতে গত বৃহস্পতিবার কাবুলে নিজেদের দূতাবাসে একটি কারিগরি দল পাঠিয়েছে ভারত। বিপদে প্রতিবেশীর এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন দল তালেবান। এক প্রতিবেদনে এই খবর জানিয়েছ সংবাদমাধ্যম বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডস।

delhi sends relief and technical team to kabulকাবুলে ত্রাণ সহায়তা ও কারিগরি দল পাঠাল দিল্লি

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- তালেবান মুখপাত্র আব্দুল কাহার বালখি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, কাবুলে নিজেদের দূতাবাসে দূত ও কারিগরিমদল পাঠিয়ে আফগান জনগণের পাশে থাকা ও তাদের মানবিক সহায়তা দিতে ভারত যে পদক্ষেপ নিয়েছে তালেবান তাকে স্বাগত জানায়।

গত বুধবার আফগানিস্তানের দক্ষিণ পূর্বের পাকতিকা প্রদেশে ৬.১ মাত্রার ভূমিকম্পে এক হাজারের বেশি নিহত এবং অন্তত দেড় হাজার মানুষ আহত হয়েছেন। এখনো অনেক মানুষ মাটির নিচে চাপা পড়ে আছেন। এমন পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সহায়তার আহ্বান জানিয়েছে তালেবান।

আফগানিস্তানে ভারতের পাঠানো সহায়তার চালানগুলোতে রয়েছে ২০ হাজার টন গম, ওষুধ, কোভিড-১৯ এর পাঁচ লাখ ডোজ টিকা এবং শীতের কাপড়।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে জানিয়েছে- সব সময়ের মতোই ভারত আফগানিস্তানের মানুষের পাশে রয়েছে। দেশটির সঙ্গে আমাদের কয়েক শতাব্দীর পুরোনো সম্পর্ক। আফগানিস্তানের মানুষদের ত্রাণ সহায়তা সরবরাহ করতে ভারত দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

বিশ্লেষকরা বলছেন, কাবুলে কারিগরি দল পাঠানোকে একটি প্রাথমিক ধাপ হিসেবে দেখা হচ্ছে, যা কিনা আফগানিস্তানে ভারতকে নিজেদের কূটনৈতিক উপস্থিতি পুনর্বহাল করার পথে এগিয়ে নিতে পারে।

গত আগস্টে তালেবান ক্ষমতা দখলের সময়ে কাবুলে ভারতের দূতাবাস বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং কর্মীদের সেখান থেকে ফিরিয়ে আনা হয়। তবে এই মাসের আগের দিকে ভারত প্রথমবারের মতো আফগানিস্তানে কর্মকর্তাদের একটি দল পাঠায়, যাতে কিনা তালেবান নেতৃত্বের সাথে তাদের যোগাযোগ স্থাপনের সিদ্ধান্তের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

তালেবান ক্ষমতা দখলের আগে, ভারত ওই অঞ্চলের মধ্যে আফগানিস্তানকে সর্বোচ্চ উন্নয়ন সহায়তা প্রদানকারী দেশ ছিল। সেখানে বিভিন্ন প্রকল্পে ভারত প্রায় ৩০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করে। প্রকল্পগুলোর মধ্যে বিদ্যালয়, রাস্তা, বাঁধ ও হাসপাতাল নির্মাণও ছিল।