আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 58 মিনিট আগে

যিলহজ মাসের চাদঁ দেখা গিয়েছে, আগামী দুই সেপ্টেম্বর ঈদ। এর মধ্যেই নগরীর বাসিন্দারা ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছেন। ঘর তালাবদ্ধ করে গ্রামে ছোটার আগে ছোট ছোট সতর্কতা আপনার ঈদকে আরো আনন্দময় করে তুলবে। এছাড়া বেশ কয়েকদিনের লম্বা ছুটিতে যাবার আগে ও ফিরে এসে কিছু বিষয় মেনে চলতে ভলোর পরে আপনাকে খারাপ সময়ের মুখোমুখী হতে হবে না।

eid holiday tips

একটু সচেতনতাই আপনার বাড়ি যাওয়ার পর আপনার নগর কুঠিটি নিরাপদ রাখতে পারে। ছুটির দিনে বাড়ি বা কোথাও বেড়াতে গেলে বাসার সবকিছু গুছিয়ে যাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই জেনে নিতে পারেন কী কী বিষয় আপনার ভুলে গেলে চলবে না।

প্রথম সতর্কতা হিসেবে ঘরের দরজা, জানালা, ছাদের দরজা সবকিছু খুব ভাল করে আটকে দিন। বাইরে রাখা প্রয়োজনীয় জিনিস ঘরে এনে রাখতে ভুলবেন না। কাপড় ধুয়ে ইস্ত্রি করে গুছিয়ে রাখতে পারলে ভালো। তাতে ফিরে এসেও পরিপাটি ঘর দেখে আপনার মনে ছুটির আমেজটা বজায় থাকবে।

তেলাপোকা বা অন্যান্য পোকার আক্রমণ হতে রক্ষার জন্য কাপড়ের ভাঁজে ভাঁজে নিমপাতা বা ন্যাপথলিন রাখা উচিৎ। ঘর বন্ধ করার আগে সব রকম বৈদ্যুতিক সুইচ বন্ধ করতে হবে, অতিরিক্ত সতর্কতা হিসেবে এই কাজটি কয়েকবার দেখে নেয়া ভাল। আর গ্যাসের চুলা, পানির কল, ফ্রিজের লাইন সব ভালভাবে বন্ধ করতে হবে তবে ফ্রিজের লাইন বন্ধ করার আগে ফ্রিজ খালি করে নিতে হবে নয়তো খাবার পচে দুর্গন্ধের কারণ হতে পারে।

বাসায় গাছ থাকলে গোড়ায় নারিকেলের ছোবরা দিয়ে পানি দিয়ে রাখুন, এতে গাছ পরিমাণ মতো পানি পাবে। অথবা বড় বোতলের তলা ছিদ্র করে গাছের উপর ঝুলিয়ে দিতে পারেন। আর এতসব ঝামেলা মনে হলে নার্সারিতেও গাছগুলো রেখে আসতে পারেন এই কদিনের জন্য। ছুটির দিনে চুরির আশংকা থাকে বলে নিরাপত্তা জোরদার করতে অতিরিক্ত তালা ব্যবহার করুন।

ছুটি কাটিয়ে বাসায় ফিরে সবার আগে দরজা জানালা খুলে দিন এতে ঘরের ভ্যাপসা গন্ধ দূর হবে। পরিবারের সবাই মিলে ঘর পরিস্কার করে নিন। রান্না ঘরে গিয়েই চুলা ধরানোর চেষ্টা করবেন না, কোন কারণে গ্যাসের পাইপ লিক করলে বাতাস বের হয়ে যেতে সময় দিন। বাতাস চলাচল স্বাভাবিক হলে তবেই দিয়াশলাই জ্বালান। আর খাবার তৈরীর আগে সব পাত্র খুব ভাল করে পরিস্কার করে নিতে ভুলবেন না।

Add comment

Security code
Refresh