advertisement
আপনি দেখছেন

ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে যশোর সদর উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক ও প্রদর্শক পদে অর্থ লেনদেনের মাধ্যমে ছয়জনকে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে দুজন শিক্ষক ইতোমধ্যেই এমপিওভুক্ত হয়েছেন। বাকি চারজনের আবেদন নাকচ করেছে শিক্ষা অধিদপ্তর।

map of jessore

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ২০১৫ সালের ২২ অক্টোবর থেকে পরবর্তী যেকোন সময়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে বেসরকারি বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৪ অক্টোবর স্থানীয় দৈনিক গ্রামের কাগজ-এ মোমিননগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এসএসসি (মাধ্যমিক) ভোকেশনালের (কারিগরি) শূন্যপদে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে একজন করে সহকারী শিক্ষক ও কম্পিউটার ডেমোনেস্ট্রেটর পদে একজন নিয়োগ দেয়া হবে।

কিন্তু একই বছরের ২৭ ডিসেম্বর সহকারি শিক্ষক পদে চারজনের বদলে ছয়জন নিয়োগ দেয়া হয়। নিয়োগের এই বিষয়টিকে বিশ্বাসযোগ্য করতে ২০ অক্টোবর যশোরের দৈনিক সমাজের কাগজ পত্রিকায় নিয়োগপ্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ হয়েছে দাবি করে একটি বিজ্ঞপ্তির ফটোকপি নোটিশ বোর্ডে টাঙানো হয়। তবে খোঁজ করে জানা যায়, দৈনিক সমাজের কাগজে ওই তারিখে মোমিননগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কোন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়নি।

নিয়োগপ্রাপ্ত ছয়জনের মধ্যে রয়েছেন যশোর শহরের বাসিন্দা শামীম রেজা। তিনি বলেন, 'নিয়োগের সময় আমার কাছ থেকে তিন লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছে। কিন্তু পরে জানতে পারলাম নিয়োগের বিষয়টি সম্পূর্ণ ভুয়া। তাই আরেক জায়গায় চাকরীতে যোগ দিয়েছি। এখন সেই টাকা আর ফেরত পাচ্ছি না।'

ইংরেজি বিষয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া মোখলেছুর রহমান জানান, যেহেতু একই বোর্ডে নিয়োগ পাওয়া দুজন শিক্ষক এমপিওভুক্ত হয়েছেন, তাঁরও হতে পারে। তবে ঘুষের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ওই বিষয়ে কথা বলতে রাজী হননি।

প্রধান শিক্ষক এসব অভিযোগের ব্যাপারে বলেন, 'টাকা-পয়সা লেনদেনের ব্যাপারে আমি কিছু জানি না। এ বিষয়ে সভাপতি সাহেবের সঙ্গে কথা বলতে পারেন।’
যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘যতোদূর জানি, পত্রিকায় দুই দফা বিজ্ঞাপন দিয়ে শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু কারো কাছ থেকে কোন টাকা পয়সা নেয়া হয়নি।'

জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান,ওই বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় গত সোমবার দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি প্রতিবেদন প্রকাশ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।