advertisement
আপনি দেখছেন

রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রগতি সরণি রোডে সু-প্রভাত বাসের ধাক্কায় সড়কেই প্রাণ হারান বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী। এমন মর্মান্তিক ঘটনার পর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ঘাতক সু-প্রভাত বাসের নিবন্ধন বাতিল করেছে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বিআরটিএ।

su provat bus

দিনভর শিক্ষার্থীদের তুমুল আন্দোলনের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ বিআরটিএ এক বিজ্ঞপ্তিতে এমন সিদ্ধান্ত জানায়।বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ার) মো. রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, 'মোটরযান অধ্যাদেশ, ১৯৮৩ এর ৪৩ ধারা মোতাবেক ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৪১৩৫ নং বাসের রেজিস্ট্রেশন সাময়িকভাবে বাতিল করা হয়েছে।'

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মৃত্যুর জন্য বাসটির বেপরোয়া গতিকেই দায়ী করেছে সংস্থাটি।

শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় শুক্রবার সকাল থেকেই রাজধানীর প্রগতি সরণি সড়ক অবরোধ করে রাখা হয়। পরে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে পুলিশ, এলাকার কাউন্সিলর ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অনুরোধে আন্দোলন স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, মঙ্গলবার আন্দোলন স্থগিত হলেও বুধবার সকাল ৮টা থেকে আবারও আন্দোলন শুরু হবে। তারা সারাদেশের শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান নিয়ে আন্দোলনে শরিক হওয়ার আহ্বান জানান। 

শিক্ষার্থীরা অবরোধ উঠিয়ে নেয়ার পর সন্ধ্যা ৬টা থেকে প্রগতি সরণিতে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।