advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 12 মিনিট আগে

আজ বুধবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের ৯০তম জন্মদিন উদযাপিত হয়েছে। এদিন অসুস্থ সাবেক এই রাষ্ট্রপতি তার দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে ৯০ পাউন্ডের কেক কাটেন। গুলশানের একটি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে দেয়া ভাষণই শেষ ভাষণ বলে উল্লেখ করেন এরশাদ।

h m ershad final speech

এরশাদ বলেন, 'আজকের এই দেয়া বক্তব্যই হয়তো আমার শেষ ভাষণ।' দু:খভারাক্রান্ত এরশাদ বলেন, 'এই পৃথিবীতে আমার মতো অত্যাচারিত নিষ্পেষিত ব্যক্তি আর নেই। আমার পক্ষে যেন রায়টি না যায় সেজন্য মোট সাত বার বিচারক পরিবর্তন করা হয়েছে। কোন বিচারে ছাড়াই ছয় বছর কারাগারে রাখা হয়েছে।'

জন্মদিনের অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির জিএম কাদেরসহ জাপার কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সংগীত শিল্পী শাফিন আহমেদসহ কয়েকজন শিল্পী গান পরিবেশন করেন। 

অনুষ্ঠানস্থলে হুইল চেয়ারযোগে ঢুকেন সংসদের বিরোধীদলীয় প্রবীণ এই নেতা। এরশাদ বলেন, 'দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলাম। কেউ আমার পাশে ছিল না। শত অত্যাচার করেও জাতীয় পার্টি এবং আমাকে দমানো যায়নি। মনের জোরেই এগিয়ে যাচ্ছি। ষড়যন্ত্র করে লাভ নেই, মানুষ আমাকে ভালোবাসে।'

তিনি বলেন, 'অবিচার আর অত্যাচারের পরও জাতীয় পার্টি আজ প্রধান বিরোধীদল। সকল ভেদাভেদ ভুলে এক হয়ে কাজ করুন। জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করুন। আগামী নির্বাচনে ক্ষমতায় যাওয়ার মতো শক্তি অর্জন করুন।'

সভায় কর্মীরা অভিযোগ করেন সিএমএইচে এরশাদের ভুল চিকিৎসা হয়েছে। তখন এরশাদ বলেন, 'সিএমএইচে কখনো ভুল চিকিৎসা হয় না। হাসপাতালের ডাক্তাররা অত্যন্ত আন্তরিক। সেনাবাহিনী নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করা সমীচিন হবে না।'

sheikh mujib 2020