advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 32 মিনিট আগে

মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদৌলা জেল থেকে নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার নির্দেশ দিয়েছেন বলে দাবি করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সংস্থাটির প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করা হয়। নুসরাত হত্যার তদন্তের সর্বশেষ পরিস্থিতি সাংবাদিকদের জানাতেই এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিলো।

pib nusrat

পিবিআই উপমহাপরিদর্শক বনজ কুমার মজুমদার বলেন, ঘটনার দিন ঘটনাস্থলে নুর উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামিম, জাবেদ হোসেন সহ আরো বেশ কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, যৌন নির্যাতনের মামলার কারনে আলেম সমাজকে হেও করা হয়েছে এই যুক্তি দিয়ে সিরাজউদৌলা তার অনুসারীদের নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার নির্দেশ দেন। পরে তার অনুসারীরা এই নির্লিপ্ত কর্মকাণ্ডটি ঘটায়।

পিবিআই এই কর্মকর্তা বলেন, নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার আরো একটি কারণ আমদের তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। তা হলো- নুসরাতকে মামলায় তৃতীয় আসামি শাহদাত প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়। আর এটি মানতে পারেনি শাহদাত। নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার পেছেনে প্রচণ্ড আক্রোশটাও কাজ করেছে।

নুসরাত হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত নয় আসামির মধ্যে আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই নূর উদ্দিন হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

sheikh mujib 2020