advertisement
আপনি দেখছেন

পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজনে মলচত্বরের কনসার্টটি অবশেষে বাতিল হয়ে গেছে। কনসার্টকে ঘিরে দুই দফা হামলার পর আর্থিক সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান মজো নিরাপত্তাহীনতার কথা জানিয়ে কনসার্টটি বাতিল করেছে। এর আগে শুক্রবার দিবাগত রাতে ছাত্রলীগে দুই পক্ষের গণ্ডগোলের মধ্যে একপক্ষ প্রস্তুতকৃত মঞ্চে অগ্নিসংযোগ করে।

no consert in du

কনসার্টটি বাতিল হওয়ায় আর্থিক সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষতির মুখে পড়েছে বলে দাবি করেছে স্পন্সর আকিজ ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেড। এ বিষয়ে মোজোর অপরেশন ব্যান্ড হেড মার্কেটিং বিভাগের প্রধান আজম বিন তারেক বলেন, 'মধ্যরাতে প্রথমবার অগ্নিকাণ্ডের পর আমাকে অনেক অনুরোধ করা হয়েছে। ছাত্রলীগ থেকে বলা হয়েছে, সবকিছু আন্ডার কন্ট্রোলে থাকবে। কিন্তু এখানে অবস্থা সুবিধার না।'

তিনি বলেন, 'ছাত্রলীগের আশ্বাসে সবকিছু গুছিয়ে যখন পুনরায় কাজ করা শুরু করলাম। তখন সকাল ৮ টার দিকে চারজন লোক হেলমেট পরে এসে কনসার্টের সাউন্ড বক্স (যার দাম তেতাল্লিশ লক্ষ টাকা) সেখানে পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগিয়ে চলে যায়। সব মিলিয়ে প্রায় ১ কোটি টাকার বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তাই ঝুঁকি নিয়ে কনসার্ট চালিয়ে যাওয়া সম্ভব না।’

এদিকে শনিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেনের কনসার্ট চালিয়ে যাবার আশ্বাস দিলেও বিকেলে উল্টোচিত্র দেখা যায়। কনসার্টের জন্য নির্ধারিত মল চত্বর থেকে, সবধরনের সরাঞ্জামাদি সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। বর্তমানে সেখানে স্টেজ ছাড়া কিছুই নেই।

কনসার্ট হবে না উল্লেখ করে মোজোর সিকিউরিটি ফোর্সের কর্মকর্তা বলেন, 'সব মালামাল নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কনসার্টটি আর হচ্ছে না।'

এ বিষয়ে দু:খ প্রকাশ করেছেন ডাকসুর সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসিফ তালুকদার। তিনি বলেন, ‘যে ঘটনা ঘটেছে সেটি অনাকাঙ্ক্ষিত।'