advertisement
আপনি দেখছেন
সর্বশেষ আপডেট: 23 মিনিট আগে

বিএনপি ক্ষমতা হারানোর পর ২০০৬ সালে দলটি থেকে বেরিয়ে কর্নেল (অব.) অলি আহমেদসহ বেশ কিছু নেতা লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) নামে আলাদা একটি দল গঠন করেছিলেন। এরপর একযুগ পেরিয়ে গেলেও তাদের তেমন কিছু অর্জন নেই বললেই চলে। বরং মতবিরোধ তুঙ্গে ওঠায় এ দলটিও ভেঙে গেছে।

new ldpবিএনপি দলীয় পতাকা

গত ২৬ জুন দলটি থেকে পদত্যাগ করা বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা গত সোমবার এলডিপি নামেই সাত সদস্যের একটি সমন্বয়ক কমিটি করেছেন। এ কমিটিরই এক নেতা বলছেন, বিএনপি ভেঙে তারা যে পাপ করেছিলেন, তার প্রায়শ্চিত্ত করতে দলটিতে ফিরতে চান তারা।

বিএনপিতে ফিরতে চাওয়া নেতারা হলেন এলডিপির সমন্বয়ক কমিটির আহবায়ক ও বিএনপি আমলের সাবেক হুইপ আব্দুল করিম আব্বাসী, সদস্য সচিব ও এলডিপির সাবেক সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম, কমিটির সদস্য ও এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল গণি, এম আবুল বাসার, সৈয়দ ইব্রাহিম রওনক, তৌহিদুল আনোয়ার ও কাজী মতিউর রহমান। তারা সবাই বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ছিলেন, পরবর্তীতে দলটি থেকে বেরিয়ে গিয়ে কর্নেল অলির নেতৃত্বে এলডিপি গঠন করেন।

এলডিপির একাংশের এই নেতারা জানান, কর্নেল অলির পাল্টা সমন্বয় কমিটি গঠনের পর বিএনপি নেতারা অভিনন্দন জানিয়েছেন। নতুন কমিটি বিলুপ্ত করে আবার বিএনপিতে ফিরতে চেয়ে দলটির শীর্ষ নেতাদের আনুকূল্য পাওয়ার চেষ্টা করছেন তারা। কিন্তু এখনো বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো যোগাযোগ বা কিছু জানানো হয়নি।

new ldpএলডিপির নতুন সমন্বয় কমিটি

এ বিষয়ে আব্দুল করিম আব্বাসী বলেন, আমরা দীর্ঘদিন বিএনপির রাজনীতি করেছি। দল থেকে বেরিয়ে গিয়ে আমরা ভুল করেছিলাম। এখন আবার বিএনপিতে ফিরতে চাই। এজন্যই আমরা এই প্রসেসে (সমন্বয় কমিটি গঠন) গিয়েছি। আমরা আশা করি, বিএনপির পক্ষ থেকে বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। কারণ, বিএনপি থেকে যারা বেরিয়ে গিয়েছিল, তাদেরকে আবার দলে ফিরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

জানতে চাইলে শাহাদাত হোসেন সেলিম বলেন, বিএনপি আমাদের আপন ঠিকানা, চিন্তা-চেতনা। কর্নেল অলির জাতীয় মুক্তি মঞ্চ গঠনকে আমরা বিএনপির বিপক্ষে মনে করছি। তাই আমরা সেখান থেকে বেরিয়ে এসেছি। আমাদের সারাদেশের নেতাকর্মীরা যোগাযোগ করছে। সবাইকে নিয়েই আমরা আবার বিএনপিতে ফিরতে চাই।

তিনি আরো বলেন, ২০০৬ সালে আমরা বিএনপি ভেঙে এলডিপি গঠন করে অন্যায় করেছি, পাপ করেছি। আমরা মনে করে আমাদের সেই অন্যায় ও পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে বিএনপি একটা সুযোগ দেবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

জানা গেছে, দলীয় কার্মকাণ্ড না থাকা, নির্বাচনে মনোনয়ন না পাওয়া ও কাঙ্খিত পদ না পাওয়ায় কর্নেল (অবঃ) অলির নেতৃত্বাধীন এলডিপি থেকে পদত্যাগ করেন হেভিওয়েট তিন সাবেক এমপি।

এসব নেতার মধ্যে সাবেক কয়কেজন এমপি থাকায় বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে বিএনপির হাইকমাণ্ড। তবে এ বিষয়ে দলটির সিনিয়র নেতারা এখনই কিছু স্বীকার করতে চাইছেন না। জানতে চাইলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, তাদের বিএনপিতে যোগ দেয়ার বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।

sheikh mujib 2020