advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশ ট্রেডিং কর্পোরেশনের (টিসিবি) ৪৫ টাকা কেজির পেঁয়াজের জন্য লাইনে দাঁড়িয়েও তা কিনতে পারেননি দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। মঙ্গলবার সকাল থেকে দিনাজপুর ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গণে শুরু হয় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রয়। এদিন দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম বিক্রি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

dinajpur mayor onionলাইনে দাঁড়িয়েও পেঁয়াজ পেলেন না দিনাজপুরের মেয়র

পৌর মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় দেখলাম ৪৫ টাকা করে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। তখন সাধারণ মানুষের সঙ্গে গিয়ে লাইনে দাঁড়াই। এ সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সামনে গিয়ে পেঁয়াজ নিতে বললেও যাইনি। প্রায় এক ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। যখন সামনে আরো ৪ থেকে ৫ জন লোক ছিল তখনই পেঁয়াজ শেষ হয়ে যায়।’

জানা যায়, টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির সংবাদ শুনে সকাল থেকেই দিনাজপুর ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গণে ভিড় করতে থাকেন ক্রেতারা। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে পেঁয়াজ ক্রয় করে অনেক ক্রেতাই হাঁপিয়ে ওঠেন। পেঁয়াজ শেষ হয়ে যাওয়ায় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও অনেকেই কিনতে পারেননি।

দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনতে পেরে সব ক্রেতারাই বেশ খুশি। শহরের স্কুলশিক্ষক মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘এ মুহুর্তে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনতে পেরে অন্যরকম আনন্দ লাগছে।’

অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী আবেদ আলী বলেন, ২০০-২৫০ টাকায় পেঁয়াজ কিনে হাঁপিয়ে উঠেছি। বরাদ্দ আরও বেশি হলে অনেক মানুষ সুবিধা পেত।

জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম বলেন, বিক্রির জন্য প্রতিদিন এক টন করে পেঁয়াজ বরাদ্দ করা আছে। যতদিন পেঁয়াজ মজুদ থাকবে, ততদিন টিসিবির এই বিক্রি অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় তা সহনশীল পর্যায়ে রাখতে টিসিবির মাধ্যমে ৪৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

sheikh mujib 2020