advertisement
আপনি দেখছেন

মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক নুরের একটি ফোনালাপ প্রচারিত হয়েছে দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে। এরপর মঙ্গলবার রাতেই ফেসবুক লাইভে এসে ভিপি নুরুল হক নুর দাবি করেছেন, ফাঁস হওয়া ফোনালাপকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। একই সঙ্গে তিনি আইনের আশ্রয় নেবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন।

vp nur at tsc

মঙ্গলবার একটি টেভি চ্যানেলে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপে তাকে জনৈক প্রকল্প কর্মকর্তার কাছে তদবির করতে শোনা গেছে। পাশাপাশি প্রবাসী এক বাংলাদেশিও তাকে টাকা দিতে চান বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপ প্রসঙ্গে ফেসবুক লাইভে এসে নুর বলেন, আমার একটি ফোনালাপ ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমার পুরো কথা না শুনিয়ে কিছু অংশ কেটে কেটে প্রচার করেছে। এটা সাংবাদিকতার নৈতিকতার সঙ্গে যায় না। আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদলিপি ও উকিল নোটিশ পাঠাব।

নুর বলেন, আমার এক আন্টি আগে থেকেই কন্সট্রাকশনের বিজনেস করেন। তার একটি প্রকল্পে ১৩ কোটি টাকার মসজিদ নির্মাণের কাজ ছিল। কাজটির জন্য ব্যাংক গ্যারান্টি দেয়ার লাস্ট তারিখের আগের দিন আন্টি আমাকে ফোন দেন। এসময় তিনি পরিচিত কারো মাধ্যমে যাদের লাইসেন্স আছে, তাদের মাধ্যমে যেন ব্যাংক গ্যারান্টার করে রাখি। শেষ দিন হওয়ায় আমি আমার পরিচিত এক কন্ডাক্টরকে কাজটি করতে পারবে কি-না সেটা জিজ্ঞেস করি। এটাই ছিল ফোনালাপ।

ডাকসুর ভিপি বলেন, ‘কিন্তু ওখানে (টেলিভিশন চ্যানেল) ফোনালাপের আংশিক তথ্য তুলে ধরেছে। ওখানে কিন্তু ক্লিয়ার করা নেই যে আমি কাউকে কাজের কথা বলছি বা কারো কাছে কাজ চাচ্ছি বা কাউকে সুপারিশ করছি। আন্টি বলছেন যে, তার কাজের একটি ব্যাংক গ্যারান্টি দিতে পারবে কি-না? কারণ কন্সট্রাকশন কাজ করলে ব্যাংক গ্যারান্টি লাগে কাজের শতকরা অনুযায়ী।’

তিনি বলেন, ওই ফোনালাপে একজন আমাকে হেল্প করতে চায়। নাম, ই-মেইল চাইছে। সেখানে কিন্তু আমার কোনো উত্তর শোনানো হয়নি। যেকোনো মানুষ যদি আমাকে ফোন দিয়ে সাহায্য করতে চায় তাহলে আমার বলার কি আছে। আমি কী বলছি সেটা অডিওতে যোগ না করে আমাকে কি বলেছে সেটা যোগ করা হয়েছে। মনে হচ্ছে এটা কেউ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমাকে বিব্রত করতেই করেছে। এবিষয়ে তিনি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিবেন বলেও জানিয়েছেন।

নুর বলেন, আমাকে ছাত্রলীগের কেউও ফোন দিয়ে টাকা পাঠাতে চাইতে পারে। আমি সেখানে কী বলছি সেটার রিপ্লাইও শোনানো উচিত। এমন ফোনতো যে কেউ করতে পারে। শুধু তার অংশটুকু শুনেই জাস্টিফাই করা উচিত নয়। ডাকসু ভিপি হিসেবে যেকেউ ফোন দিতে পারে। কিন্তু আমি তাকে বলে দিছি, অপরিচিত কারও কাছ থেকে সহযোগিতা নেব না। যদি প্রয়োজন হয়, আপনাকে জানাবো। আমার উত্তরটা ছিল এমন। অডিওতে এটা যোগ করা হয়নি। এখানে কোন আর্থিক লেনদেনের ঘটনা ঘটেনি।

লাইভে নুর বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সরকারের বিভিন্ন দুবৃত্তায়ন নিয়ে কথা বলছি, বিভিন্ন বাহিনী দিয়ে নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরছি বলেই এই ষড়যন্ত্র। আমাদেরকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই এই ফোনলাপ ফাঁস করা হয়েছে। তবে অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমাদের যে লড়াই-সংগ্রাম চলছে সেটি অব্যাহত থাকবে। আমাদেরকে মেরে ফেললে বা গুম করলেও আমরা কখনো মিথ্যার সঙ্গে আপোষ করবো না। তিনি ছাত্রসমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।