advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের বিতর্কিত ‘মুসলিমবিরোধী’ নাগরিকত্ব বিল নিয়ে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর দেয়া বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ প্রতিবাদ জানান।

fakhrul bnp alবিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভারতের সংসদে বলা হয়েছে, বিএনপি সরকারের আমলে বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন করা হয়েছে। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা জোর গলায় বলতে পারি, বিএনপির আমলে এখানে সংখ্যালঘুদের স্বার্থরক্ষা করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, নাগরিকত্ব বিলে স্পষ্ট বলা হয়েছে, বাংলাদেশ থেকে মুসলিমরা অবৈধভাবে ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে। অমুসলিমদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে। কিন্তু মুসলিমদের দেয়া হবে না।

দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে দাবি করে ফখরুল বলেন, আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী কথিত বন্দুকযুদ্ধের নামে গত ১০ বছরে এক হাজার ৫৯৯ জনকে বিচারবহির্ভূতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এক লাখের বেশি রাজনৈতিক নেতাকর্মীর নামে মামলা দেয়া হয়েছে।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে জানিয়ে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, আজকে দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে ব্যক্তি তাদের বিপক্ষে কথা বলবে, হয় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়, নয়তো গুম করে ফেলা হয়। গার্মেন্টস ও নারী শ্রমিকদের নির্যাতন বন্ধেও সরকার কোনো উদ্যোগ নিচ্ছে না।

প্রসঙ্গত, সোমবার ভারতীয় সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি পাশ করিয়ে নেয় বিজেপি সরকার। বিলটি উত্থাপনকালে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, পশ্চিমবঙ্গসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে আসা বহু শরণার্থী বছরের পর বছর ধরে বসবাস করছে।

sheikh mujib 2020