advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন-২০১৯ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান কল্যাণ ফ্রন্টের (বিএইচবিসিকেএফ) নেতারা। আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ফ্রন্টের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট গৌতম চক্রবর্তী বলেন, ‘আইনটি ধর্মীয় বিভাজনের ভিত্তিতে করার ফলে উভয় দেশের সংখ্যালঘুরা আতঙ্কিত হবে।’

bhbckf

এ দেশের হিন্দুদের নিরাপত্তা যাতে বিঘ্নিত না হয় সে জন্য ভারত এবং বাংলাদেশের উভয় সরকারের তেমন কোনো পদক্ষেপ নেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ভারতের নাগরিকপুঞ্জি নিয়ে গৌতম বলেন, ‘এটি বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হতে পারে এবং তা ধর্মীয় বিভাজনে সহায়ক হবে। যখন ভারতের জনগণ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এর বিরুদ্ধে সোচ্চার তখন আমরাও উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না,’ বলেন গৌতম।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও সাবেক মন্ত্রী নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, অনেক ভারতীয় নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন। খারাপ রাজনীতির কারণে উভয় দেশে সংখ্যালঘুরা নিপীড়িত বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সম্প্রতি ভারতের নরেন্দ্র মোদি সরকার অমুসলিম সংখ্যালঘুদের দ্রুত ভারতীয় নাগরিকত্ব দেয়ার জন্য নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস করেছে। এ পদক্ষেপের প্রতিবাদে ভারতজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

এছাড়া, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য আসামে জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি (এনআরসি) করা হয়েছে এবং এতে দেশহীন হয়ে পড়েছেন ১৯ লাখ মানুষ। ইউএনবি।