advertisement
আপনি দেখছেন

বহুল আলোচিত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় পলাতক ৫ জনসহ মোট ২৫ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে শুনানির জন্য আগামী ৩০ জানুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েস এ দিন ধার্য করেন।

abrar buet bsl

আবরার হত্যা মামলাটি পরিচালনার জন্য রাষ্ট্রপক্ষের সরকারি কৌঁসুলি নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে শুনানির সময় আদালতকে জানান আদালতের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল।

মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর হবে বলে জানিয়েছেন আদালত।

কয়েকজন আসামির পক্ষে এ মামলার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করা হলে আদালত বলেন, যে আদালতে মামলাটির বিচার হবে সেখানে এসব আবেদনের বিষয়ে শুনানি হবে। আবেদনগুলো ওই আদালতে জমা দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাপাস কুমার পাল।

এদিন অভিযোগপত্র গ্রহণ ও আসামিদের আদালতে হাজির করার দিন ধার্য থাকায় কারাগার থেকে ২২ আসামিকে আজ সকালে আদালতে আনা হয়।

abrar fahad 25 new

এর আগে গত ১৩ জানুয়ারি নথি বিচারের জন্য প্রস্তুত হওয়ায় মামলাটি বদলির আদেশ দেন ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কায়সারুল ইসলামের আদালত।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৭ অক্টোবর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এরপর ১৩ নভেম্বর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে এ হত্যা মামলার চার্জশিট দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মো.ওয়াহিদুজ্জামান। অভিযুক্ত ২৫ জনের মধ্যে এজাহারভুক্ত ১৯ জন এবং এজাহার বহির্ভূত ছয়জন। এর মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ২২ জনকে।

গ্রেপ্তারকৃত হলেন মেহেদী হাসান রাসেল, মো. অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মো. মেহেদী হাসান রবিন, মো. মেফতাহুল ইসলাম জিওন, মুনতাসির আলম জেমি, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির, মো. মুজাহিদুর রহমান, মুহতাসিম ফুয়াদ, মো. মনিরুজ্জামান মনির, মো. আকাশ হোসেন, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মাজেদুর রহমান, শামীম বিল্লাহ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, এ এস এম নাজমুস সাদাত, ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, অমিত সাহা, মো. মিজানুর রহমান ওরফে মিজান, শামসুল আরেফিন রাফাত ও এস এম মাহমুদ সেতু।