advertisement
আপনি দেখছেন

রাজধানীর গাছগুলোতে প্রতিদিন গড়ে ৪৩৬ দশমিক ৭ মেট্রিক টন ধুলা জমে। সম্প্রতি স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সেন্টার ফর অ্যাটমোসফেয়ারিক পল্যুশন স্টাডিজ (সিএপিএস) পরিচালিত এক সমীক্ষায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

tree dust dhaka cityরাজধানীর গাছগুলোতে এভাবেই ধুলার স্তর জমে থাকে

‘ঢাকা শহরে গাছের পাতায় ধূলিকণা জমার সামগ্রিক মূল্যায়ন’ শীর্ষক এই সমীক্ষার জন্য বেছে নেয়া হয় গুলিস্তান পার্ক, চন্দ্রিমা উদ্যান, রমনা পার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেনকে। সমীক্ষার জন্য রাস্তা থেকে ১০০ মিটার ভেতরে মোট ৭৭ প্রজাতির গাছ থেকে ধুলার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

গত ৯ থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত নমুনাগুলো সংগ্রহ করে তা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। সেখানে ফিল্টারিং ও গ্র্যাভিমেট্রিক পদ্ধতিতে বিশ্লেষণ করার পর দেখা যায়, ধুলার পরিমাণ সবচেয়ে বেশি গুলিস্তান পার্কে, আর সবচেয়ে কম বোটানিক্যাল গার্ডেনে।

এর মধ্যে ৭২ ঘণ্টায় পাতার প্রতি বর্গ মিলিমিটারে ধুলা জমার পরিমাণ ১৩ দশমিক ৫৯ মাইক্রোগ্রাম ও ২৪ ঘণ্টায় এই পরিমাণ ৪ দশমিক ৫৩ মাইক্রোগ্রাম। সে অনুযায়ী ৯৬ দশমিক ৪৮ বর্গকিলোমিটার জুড়ে থাকা গাছে ৭২ ঘণ্টায় এক হাজার ৩১০ মেট্রিক টন ধুলা জমে। অর্থাৎ গাছগুলোতে দৈনিক ধুলা জমে ৪৩৬ দশমিক ৭ টন।

tree dust dhaka city1রাজধানীর গাছগুলোতে এভাবেই ধুলার স্তর জমে থাকে

এ ব্যাপারে সিএপিএস পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুজ্জামান মজুমদার বলেন, বেশি যানবাহন চলার কারণেই এমনটা হচ্ছে। বিশেষ করে রাতে যানবাহনের গতি বেশি থাকে। এই গতির কারণে তখন গাছের পাতায় অনেকটা জায়গা জুড়ে ধুলা ছড়িয়ে যায়। তাছাড়া অপরিকল্পিত ও অসংরক্ষিত রাস্তা খননের কারণেও ধুলা জমে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ও গবেষণা দলের প্রধান আব্দুস সালাম বলেন, এমনিতেই ঢাকায় গাছের সংখ্যা কম। এ রকম পরিস্থিতি চলতে থাকলে যে কয়টা গাছ আছে সেগুলোর অস্তিত্বও হুমকির মুখে পড়বে।