advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ হওয়ার পথে দেশের অসংখ্য শিল্প কারখানা। তাই এ সংকট মোকাবেলায় কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ টাকা দিয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা হবে।

pm hasina adrees nationজাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আজ বুধবার সন্ধ্যার সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন তিনি। ভাষণের শুরুতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করেন। সেইসঙ্গে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদদেরও স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। এরপরই এর পরই এই তহবিলের ঘোষণা দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের শিল্প উৎপাদন এবং রফতানি বাণিজ্যে আঘাত আসতে পারে। সেই আঘাত মোকাবেলায় আপদকালীন ব্যবস্থা হিসেবে রফতানিমুখী শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছি। এগুলো দিয়ে শুধু শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করা হবে।

তিনি বলেন, করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকও ব্যবসাবান্ধব বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছে। তারা আগামী জুন মাস পর্যন্ত কোনো গ্রাহককে ঋণ খেলাপি না করার ঘোষণা দিয়েছে। পাশাপাশি রপ্তানি আয় আদায়ের সময়সীমা ২ মাস থেকে বৃদ্ধি করে ৬ মাস করা হয়েছে।

একইভাবে আমদানি ব্যয় মেটানোর সময় ৪ মাস ছিল। সেটা বাড়িয়ে ৬ মাস করা হয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিংয়ে আর্থিক লেনদেনের সীমা বাড়ানো হয়েছে। বিদ্যুৎ, পানি এবং গ্যাস বিল পরিশোধের সীমা জরিমানা ছাড়া জুন মাস পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এনজিওগুলোর ঋণের কিস্তি পরিশোধ স্থগিত করা হয়েছে, যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।