advertisement
আপনি দেখছেন

এবার দিনাজপুরে একজন মারা গেলেন জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত হয়ে। ফরহাদ হোসেন (৪০) নামের ওই ব্যক্তি কুমিল্লার এক বাড়িতে থেকে কৃষি কাজ করতেন। মৃত্যুর অন্তত ১০ দিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়লে তিনি দিনাজপুরের বাড়িতে চলে আসেন। আজ সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

dinajpur corona

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হতে পারে, এমন আশঙ্কায় বাড়ির বাকি চার সদস্যকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। আশপাশের কয়েকটি বাড়িকে লকডাউন করার চিন্তা-ভাবনা করছে উপজেলা প্রশাসন।

এর আগে গতকাল রাতে একই উপসর্গ নিয়ে শেরপুরে একজনের মৃত্যু হয়।

ফরহাদ হোসেনের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের তপসী গ্রামে। জ্বর নিয়ে বাড়িতে আসার পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না গিয়ে স্থানীয় চিকিৎসকদের মাধ্যমে ওষুধ সেবন করতে থাকেন। এভাবে দীর্ঘ দশদিন থাকার পর আজ ভোরে মারা গেলেন। জানা যায়, কুমিল্লায় যে বাড়িতে ফরহাদ কৃষি কাজ করতেন, সেই বাড়ির মালিক সম্প্রতি সৌদি আরব থেকে এসেছেন।

মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে ইতোমধ্যে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানান বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সোলায়মান হোসেন।