advertisement
আপনি দেখছেন

সীমিত আকারে গার্মেন্টস খুলে দেওয়া হলেও গ্রাম থেকে আপাতত কোনো শ্রমিককে ঢাকায় আসতে নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু কে শোনে কার কথা! হাজার হাজার গার্মেন্টসকর্মী ঢাকার উদ্দেশে পথে নেমে পড়েছে। আজ বুধবার সকালে দক্ষিণবঙ্গের কাঠালবাড়ী ঘাট থেকে ফেরি ও ট্রলারে করে পদ্মা পাড়ি দিতে দেখা গেছে হাজার হাজার শ্রমিককে।

garment workers dhakaশিমুলিয়া ঘাট থেকে হেঁটেই ঢাকায় আসছেন অনেক শ্রমিক

ফেরিতে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। গাদাগাদি করে দাঁড়িয়ে আছেন অসংখ্য গার্মেন্টস শ্রমিক, নামছেন শিমুলিয়া ঘাটে। সেখান থেকে বিভিন্ন উপায়ে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দিচ্ছেন তারা। অধিকাংশই ভ্যানে করে, তাও না পেয়ে কেউ কেউ হাঁটা শুরু করেছেন ঢাকার দিকে। এ নিয়ে গার্মেন্টসকর্মীদের সরল স্বীকারোক্তি- কাজে যোগ না দিলে চাকরি থাকবে না। 

মাওয়া নৌফাঁড়ির ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম বলেন, সকাল দশটায় দুটি ফেরি নোঙর করে, যেগুলোতে অন্তত ৫ হাজার মানুষ ছিল। এদের প্রায় সবাই গার্মেন্টস শ্রমিক। যানবাহন পারাপার করার কথা থাকলে ফেরিতে কোনো যান নেই, শুধু মানুষ আর মানুষ। এর বাইরে শ্রমিকভর্তি ট্রলার আসছে একটার পর একটা।

এদিকে রংপুর থেকেও শত শত গার্মেন্টসকর্মী ঢাকায় রওয়ানা দিচ্ছে। রাস্তায় কোনো গণপরিবহন নেই তাই শ্রমিকরা রিকশা, অটোরিকশা, ভ্যান, পণ্য পরিবহনের ট্রাকে করে আসার চেষ্টা করছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আটকে দিতে পারে সেই ভয়ে পণ্যবাহী বিশাল ট্রাকের ওপর প্লাস্টিক মুড়িয়ে ভেতরে বসে রওয়ানা দিচ্ছেন অনেকেই। ইতোমধ্যে এমন একটি ট্রাক আটক করেছে পুলিশ।

sheikh mujib 2020