advertisement
আপনি দেখছেন

কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনায় সেখান থেকে ২১ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আজ রোববার এক আদেশে স্থানীয় বাহারছড়া চেকপোস্টের ইনচার্জ লিয়াকতসহ অন্যদের প্রত্যাহার করা হয়।

mejor sinha rashedসেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান

এদিকে ঘটনা তদন্তে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ। কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন- জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও কক্সবাজার বাজার এরিয়া কমান্ডার প্রতিনিধি।

এ ব্যাপারে আজ রাজধানীর ধানমণ্ডিতে নিজ বাসভবনে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, কক্সবাজার জেলার টেকনাফে একটা অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং ইতোমধ্যে তাদের ওপর দায়িত্ব ন্যস্ত হয়েছে। কাজেই তাদের তদন্তের আগে কিছু বলা ঠিক হবে না।

তিনি বলেন, আমরা যদি এখন কিছু একটা বলি তাহলে তদন্ত কমিটি প্রভাবিত হতে পারে। তাই কোনো কিছু না বলাটাই উচিত হবে।

asaduzzaman khan kamal dec 2019 স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী তদন্ত করে বিষয়টি সুরাহা করার নির্দেশনা দিয়েছেন। সে জন্য তদন্ত কমিটিকে সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। তারা তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার পরই বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত বলা যাবে।

ঘটনা বা দুর্ঘটনা যাই হোক, কিছু একটা ঘটেছে। আর এটার জন্য যা যা করা দরকার, সবই করা হচ্ছে। তদন্তের পরই সব কিছু খোলাসা করা যাবে। অভিযুক্ত ব্যক্তি কতোটা ভুল করেছে তা তদন্তের মাধ্যমে পরিষ্কার হবে, যোগ করেন আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এর আগে ৩১ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহত হন।

sheikh mujib 2020