advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) সর্বশেষ যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তাতে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮.১ থেকে ৮.২ শতাংশ হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।

finance minister kamalঅর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল

অর্থমন্ত্রী বলেছেন, আমাদের রেমিট্যান্সের প্রবাহ বর্তমানে অত্যন্ত ভালো। রফতানি বাণিজ্য বিগত দুই মাসে পুনরায় আশানুরূপ অবস্থানে আসতে শুরু করেছে। তাই আশা করা যায়, সবকিছু মিলিয়ে লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী চলতি অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮.১ থেকে ৮.২ পর্যন্ত শতাংশ অর্জিত হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে মঙ্গলবার পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) এডিবির এক পূর্বাভাসে বলা হয়, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হতে পারে। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুকের (এডিও) হাল-নাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এডিবি।

adb officeএডিবির কার্যালয়

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে অর্থমন্ত্রী বলেন, এডিবির প্রাক্কলন অনুযায়ী ২০২০-২১ অর্থবছরে এ অঞ্চলে চীন ও ভারতের পরই অবস্থান করছে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি। যেখানে বাংলাদেশের উপরে কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, ভিয়েতনাম কিংবা থাইল্যান্ডের কেউ নেই।

এর আগে করোনার নেতিবাচক প্রভাবের মধ্যেও প্রবৃদ্ধি নিয়ে প্রাক্কলন করেছিল এডিবি, যেখানে অন্যান্য দেশের প্রবৃদ্ধি ঋণাত্মক হলেও বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ধনাত্মক। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল এশিয়ার মধ্যে সবার উপরে। চলতে অর্থবছরেও এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সবার উপরে থাকবে আশা করা যায়।

এদিন এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি মহামারি থেকে পুনরুদ্ধার করতে শুরু করেছে। সরকারের উপযুক্ত অর্থনৈতিক প্রণোদনা ও সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থার মাধ্যমে অর্থনীতিকে সুসংহতকরণ, দরিদ্র ও দুর্বলদের জন্য মৌলিক সেবা ও পণ্যাদি নিশ্চিতকরণ, রপ্তানি ও রেমিট্যান্সের ফলে সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক সক্ষমতা, অর্থনৈতিক প্রণোদনা ও সামাজিক সুরক্ষার জন্য বিদেশি তহবিল সুরক্ষারসহ সরকারের সামষ্টিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার ফলেই এটা সম্ভব হয়েছে।

তবে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি অর্জনের ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি মহামারি ও বাংলাদেশের রপ্তানির গন্তব্য প্রধান ঝুঁকি বলে উল্লেখ করেছে এডিবি।

sheikh mujib 2020