advertisement
আপনি দেখছেন

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ না হওয়ায় বিরক্তি প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে কোনো প্রতিষ্ঠান একটি কাজ শেষ না করলে, পরের প্রকল্প দেয়া হবে না বলেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন।

pm hasina 08 08 2020প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলনে কক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে তিনি এ নির্দেশনা দেন। বৈঠকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন সরকার প্রধান। পরে সংবাদ সম্মেলনে তথ্যটি জানিয়েছেন পরিকল্পনা সচিব আসাদুল ইসলাম।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের নির্মাণ প্রকল্পগুলোর কাজ শেষ হতে দেরি হয়ে যায়। একই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অনেকগুলো কাজ পাওয়ায় এ সমস্যা হয়। তাছাড়া অল্প কয়েকটি প্রতিষ্ঠানই কাজ করে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কে কতগুলো কাজ পেয়েছে, সময়মতো শেষ করেছে কি না, কোন সময় শেষ করেছে, তার একটি তালিকা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে করতে হবে।

চলমান কাজ শেষ হলেই কেবল পরবর্তী কাজ দেয়ার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, এর দুটি উদ্দেশ্য আছে। প্রথমটি হলো- নির্মাণ কাজের জন্য নতুন নতুন প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। ফলে প্রকল্প অল্প কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। দ্বিতীয়টি হলো- এতে করে সময়মতো নির্মাণকাজ শেষ হবে।

bd govt logo

সড়ক উন্নয়নের ব্যাপারে সরকার প্রধান বলেন, সড়ক টেকসই এবং ভালো রাখার জন্য পাশে জলাধার কিংবা বৃষ্টির পানি নামার ব্যবস্থা ও গাছ লাগাতে হবে। বিশেষ করে যারা লং ড্রাইভ করেন বা অন্যান্য দীর্ঘসময় ধরে রাস্তায় থাকেন, তাদের বিশ্রামের জন্য হাইওয়ের পাশে ব্যবস্থা রাখতে হবে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ‘প্রাণিপুষ্টির উন্নয়নে উন্নত জাতের ঘাস চাষ সম্প্রসারণ ও লাগসই প্রযুক্তি হস্তান্তর’ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে জানিয়ে পরিকল্পনা সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, প্রকল্পটিকে প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত ভালো বলেছেন। ভুট্টা চাষের ফলে গোখাদ্যের উন্নতি হয়েছে এবং সেটা আরো উৎসাহিত করা হবে। এই প্রকল্পে জমির ও প্রাণীর জন্য লাগসই উন্নত জাতের ঘাস ব্যবস্থা করা হবে।

sheikh mujib 2020