advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশকে মাইন-প্রতিরোধী এবং চোরাগোপ্তা হামলায় সুরক্ষিত ৩১টি ম্যাক্সপ্রো এমআরএপি গাড়ি হস্তান্তর করেছে যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে ধাতুনির্মিত তিনটি শার্ক বোট দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ঢাকায় অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস এক বার্তায় আজ শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে।

bangladesh anti mine usaযুক্তরাষ্ট্র থেকে মাইন-প্রতিরোধী গাড়ি পেল বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস জানায়, জাতিসংঘে শান্তিরক্ষী সরবরাহে বৃহত্তম দেশ বাংলাদেশ। তাই বাংলাদেশের জন্য তাদের বাহিনীর সুরক্ষায় অত্যাধুনিক সরঞ্জাম থাকা জরুরি। সামরিক প্রস্তুতির এই লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করতে অঙ্গীকারবদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র।

বার্তায় আরো বলা হয়েছে, বাংলাদেশের কাছে মাইন-প্রতিরোধী ও চোরাগোপ্তা হামলা থেকে সুরক্ষিত ৩১টি ম্যাক্সপ্রো এনআরএপি গাড়ি হস্তান্তর করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এ ছাড়া বাংলাদেশের চট্টগ্রামে তিনটি ধাতুনির্মিত শার্ক বোট হস্তান্তর করা হয়েছে। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের বিস্ফোরক যন্ত্র থেকে সুরক্ষা দিতে এমআরএপি গাড়িগুলো ব্যবহার করা হবে। অন্যদিকে, বোটগুলো ব্যবহৃত হবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নদীর তীরে অবস্থিত ব্যাটালিয়নের জন্য।

un peacekeeping missionজাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী, ফাইল ছবি

জানা যায়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে মোট ৫০টি এমআরএপি গাড়ি এবং ৭টি মেটাল শার্ক বোট কিনেছে। এটি তার প্রথম চালান। এই চালানের মূল্যমান ২৯ মিলিয়ন ডলারের বেশি। যুক্তরাষ্ট্র সরকার এর মধ্যে ১৩ মিলিয়ন ডলারের অনুদান দিয়েছে।