advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের দৌরাত্ম্যে দেশে বিপর্যয় নেমে এসেছে। সর্বাত্মক লকডাউন জারি করেও সংক্রমণের লাগাম টানা যাচ্ছে না। এ অবস্থায় করণীয় ঠিক করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে আজ মঙ্গলবার দুপুরে বৈঠকে বসেছেন সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে কঠোর লকডাউন। শিথিল করার কোনো সুযোগ নেই।

asaduzzaman kamal 1স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল

সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, পুলিশ-বিজিবি প্রধানসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, গার্মেন্টসসহ বিভিন্ন কারখানা খোলার অনুমতির জন্য বারবার অনুরোধ এসেছে মালিকদের পক্ষ থেকে। তবে আমরা সেটা এলাউ কারিনি। চলমান এই লকডাউনের শেষ পর্যন্ত কারখানা বন্ধ থাকাসহ অন্যান্য বিধিনিষেধ কড়াকড়িভাবে পালিত হবে। ৫ আগস্টের পর লকডাউন আর বাড়ছে কিনা, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়নি।

তিনি আরও বলেন, টিকাদান কর্মসূচি আরও জোরদার করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামী ৭ আগস্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হবে। এক্ষেত্রে আগাম নিবন্ধনের প্রয়োজন হবে না। জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে গেলেই টিকা দেওয়া যাবে। সরকার টিকা কার্যক্রমকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছে।