advertisement
আপনি পড়ছেন

দেশে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে আবারো স্কুল, কলেজ ও সমমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি, থেকে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। তবে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এ ব্যাপারে নিজেরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

educational instituions open directionsস্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা, ফাইল ছবি

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জেলা ও মাঠ প্রশাসন অধিশাখা থেকে আজ এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এর আগেও করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধের অংশ হিসেবে দেড় বছরের বেশি সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয়, কিংবা রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে ১০০ জনের বেশি জনসমাবেশ করা যাবে না। আবার যারা এসব ক্ষেত্রে যোগদান করবেন, তাদের অবশ্যই টিকা সনদ অথবা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সার্টিফিকেট থাকতে হবে।

omicron bangladeshওমিক্রনের কারণে দেশে আবার বাড়ছে করোনার সংক্রমণ

এতে আরো বলা হয়েছে, সরকারি বা বেসরকারি অফিস, শিল্প ও কল-কারখানাগুলোতে কর্মকর্তা বা কর্মচারীদের অবশ্যই টিকার সনদ গ্রহণ করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে দায়িত্ব বহন করবেন।

এ ছাড়া বাজার, মসজিদ, শপিংমল, বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চঘাট, রেল স্টেশনসহ সব ধরনের জনসমাবেশস্থলে মাস্ক ব্যবহারসহ যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। দেশে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ওই বছরের ১৮ মার্চ। সংক্রমণ বাড়তে থাকলে তা নিয়ন্ত্রণে একই বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরিস্থিতি বিবেচনায় ধাপে ধাপে বাড়ানো হয় সেই ছুটির মেয়াদ, যা শেষ হয় গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর।