advertisement
আপনি পড়ছেন

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে মাওয়া প্রান্তের সমাবেশস্থলে হাজির হয়েছেন দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও লাখো সাধারণ মানুষ। অনেকের মতো আজ শনিবার সকালেই সেখানে উপস্থিত হয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। সেখানে তিনি বলেছেন, পদ্মা সেতু কারও ব্যক্তিগত সম্পদ নয়, তাই বাড়াবাড়ি করবেন না।

kader siddiki 1বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী

পদ্মা সেতু নিয়ে অনুভূতি জানাতে গিয়ে এই বীর মুক্তিযোদ্ধা বলেন, বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে, পদ্মা সেতু তার সুস্পষ্ট প্রমাণ। তাই এই মাহেন্দ্রক্ষণে অবশ্যই আমরা আনন্দ করবো। কিন্তু কোনো কিছুতেই বাড়াবাড়ি ভালো নয়। মনে রাখতে হবে, সিলেটের মানুষ কাঁদছে। তাই আমাদেরকে সংযত থাকতে হবে। এই সেতুকে কেন্দ্র করে কাউকে কটূক্তি করা যাবে না।

এর আগে শারীরিকভাবে অসুস্থ হলেও হুইল চেয়ারে করে মাওয়া প্রান্তে উপস্থিত হয়েছেন আরেক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এ সময় তিনি পদ্মা সেতু পারাপারে অ্যাম্বুলেন্সের টোল ফ্রি করার আবেদন জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আজকে আমাদের বড় একটা স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাতে চাই।

ডা. জাফরুল্লাহ আরও বলেন, অ্যাম্বুলেন্সের টোল ফ্রি করার পাশাপাশি বিদেশিদের জন্য ডাবল টোলের নিয়ম করা উচিত। আশাকরি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবে। আজকের এই দিনে এখানে খালেদা জিয়া উপস্থিত থাকলে ভালো হতো। দেশের উন্নয়নে আমরা কোনো বিভাজন চাই না। উন্নয়নের ক্ষেত্রে সবাই এক না হতে পারলে দেশ পিছিয়ে পড়বে।