advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশের মৌলিক সমস্যাগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি সমস্যা হলো- বেকারত্ব। করোনাকালীন সময়ে বেকারত্ব বেড়েছে আগের চেয়ে বেশি। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাকালীন সময়ে বাংলাদেশের প্রতি চার জন চাকুরিজীবীর একজন চাকরি হারিয়েছেন। ছাঁটাই কার্যক্রম এখনো চলছে। তবে বিভিন্ন কোম্পানি এবং সরকারি চাকুরিতে নিয়োগও হচ্ছে। করোনাকালীন এই সময়ে নতুন চাকরি পেতে ৫ পরামর্শ মেনে চলুন।

cv vs resume

১. তৈরি করুন চমৎকার বায়ো ডাটা

চমৎকার বায়ো ডাটা একজন চাকরিপ্রত্যাশীকে অন্য সবার চেয়ে এক ধাপ এগিয়ে রাখে। বায়োডাটার সব তথ্যের পাশাপাশি আপনার অতিরিক্ত যোগ্যতা-অভিজ্ঞতার কথা স্পষ্ট করে লিখুন। চাইলে বিস্তারিতও লিখতে পারেন। সিভি তৈরি করে অভিজ্ঞ কাউকে দেখান। এতে করে কোনো ভুলভ্রান্তি থাকলে ঠিক হয়ে যাবে। প্রতিবার আবেদনের জন্য কোম্পানি অনুযায়ী আলাদা আলাদা সিভি তৈরি করুন। কাজটি যদিও কঠিন, কিন্তু চাকরি পাওয়ার জন্য এতটুকু কষ্ট তো স্বীকার করতেই হবে।

২. চাকরি খুঁজুন স্মার্টদের মত

চাকরি খোঁজার মধ্যেও আলাদা স্মার্টনেস রয়েছে। চাকরির পত্রিকা গুলোতে তো নজর রাখবেনই, পাশাপাশি অনলাইন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চোখ রাখুন। আপনি যদি কোন নির্দিষ্ট চাকরি খুঁজতে চান- সেক্ষেত্রে কোথায় এই পেশার লোক নিয়োগ দেবে, বিস্তারিত খোঁজখবর করুন। অনলাইনের জবস পোর্টালগুলোতে প্রতিদিন ভিজিট করুন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জব গ্রুপগুলোতেও ঢু মারুন।

৩. মাথায় রাখুন- চাকরি এখন হীরের হরিণ

অন্য সময় চাকরি যদি হয় সোনার হরিণ- তাহলে করোনাকালীন এই সময়ে চাকরি হয়ে গেছে হীরের হরিণ। হীরের পেছনে সন্ধানীরা যেমন পাগলের মতো ছুটে বেড়ায়, তেমনি একটি চাকরির পেছনেও মানুষ আপ্রাণ ছুটে বেড়াচ্ছে। এত মানুষকে ডিঙিয়ে আপনাকে চাকরিটি পেতে হবে। এক্ষেত্রে সব ধরনের যোগ্যতার পাশাপাশি নিজেকে টিকিয়ে রাখার জন্য বিভিন্ন কৌশলী পদক্ষেপ নিন।

how to be a success man

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাকালীন এই সময়ে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত পরিচয় অনেক ভালো উপকার দেয়। তাই আপনার সঙ্গে কিংবা আপনার পরিবার অথবা বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ করে পরিচিত বলয়ের মধ্যে চাকরি খুঁজুন। কোনো সন্দেহ নেই সহজে চাকরি পাওয়ার এটি একটি সেরা উপায়।

৪. পদ ও প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বাড়তি খোঁজখবর রাখুন

যে পদ এবং প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য আপনি আগ্রহী, সে পদ ও প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজখবর নিন। অন্য সবাই যে বিষয়গুলো তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না- সেই বিষয়গুলোও খুঁটিনাটিসহ আপনি জেনে রাখুন। ইন্টারভিউ বোর্ডে এরকম বিষয়গুলোই প্রার্থীকে এগিয়ে রাখে।

৫. ধৈর্য হারাবেন না

মনে রাখবেন, এখন সময় আমাদের পক্ষে নয়। তাই চাকরির জন্য অন্য সময়ের চেয়ে এই সময়ে অনেক বেশি ছোটাছুটি এবং খাটাখাটি করতে হতে পারে। তাই ধৈর্য্য হারাবেন না। আশা এবং আত্মবিশ্বাস নিয়ে লেগে থাকুন সফলতা ধরা দেবেই।

sheikh mujib 2020