advertisement
আপনি দেখছেন

মিষ্টি বা মিষ্টিজাতীয় যে কোনো খাবারই একজন ডায়াবেটিস রোগীর জন্য বিষের সমতুল্য। চিকিৎসকের কড়া নিষেধাজ্ঞার কারণেই তারা সে পথ মাড়াতে পারেন না। আমের মৌসুমে এই রসে ভরা ফলটি কে না খেতে চায়! কিন্তু রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার ভয়ে সেটাও ছুঁয়ে দেখতে পারেন না ডায়াবেটিসে ভোগা ব্যক্তি। এমন ব্যক্তিদের জন্য এবার বাজারে এসেছে ‘সুগার ফ্রি’ আম।

mango gift from pakistan

শুনতে অবাক লাগলেও পাকিস্তানের বাজারে দেদারসে বিক্রি হচ্ছে এই আম। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য দীর্ঘ গবেষণার পর আমের নতুন এই প্রজাতি উৎপাদনে সক্ষম হয়েছেন পাকিস্তানের ফল গবেষক গোলাম সারওয়ার। স্মর্তব্য যে, পাকিস্তানের কিংবদন্তি ফল গবেষক এমএইচ পাওয়ারের নাতি হলেন গোলাম সারওয়ার।

তিন ধরনের সুগার ফ্রি আম পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। সেগুলো হলো- সোনারো, গেøন ও কেট। আমের মৌসুম প্রায় শেষ হয়ে গেলেও সুগার ফ্রি আম পাওয়া যাবে আগস্টের শেষ পর্যন্ত। দামও খুব বেশি নয়, কেজিপ্রতি ৮০ টাকা মাত্র।

গোলাম সারওয়ার জানান, আমার দাদু শুধু পাকিস্তানের নন, বিশ্বের মধ্যে একজন শ্রেষ্ঠ ফল গবেষক ছিলেন। এজন্য তিনি পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে ‘সিতারা-ই-ইমতিয়াজ’ উপাধি লাভ করেছেন। তাই পারিবারিকভাবেই ফল গবেষণায় আমার হাতেখড়ি। সেই ধারাবাহিকতায় ৫ বছর আগে সুগার ফ্রি আম নিয়ে গবেষণা শুরু করার পর এবার সফল হয়েছি।