advertisement
আপনি পড়ছেন

উত্তর মেক্সিকোতে একটি কয়লা খনি ধসে ১০ জন কর্মী আটকে পড়েছেন। তাদের বাঁচাতে শত শত উদ্ধারকারী তাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। শ্রমিকদের স্বজনরা প্রিয়জনদের বেঁচে ফেরার আশায় প্রার্থনা করছেন। খনিতে দুর্ঘটনা ঘটার ৪৮ ঘণ্টা পর উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। গত বুধবার খননকাজ চলার সময় খনিতে ধসের ঘটনা ঘটে। খবর টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

mexico coal mineউদ্ধার অভিযান চলছে, তবে আশাবাদী নন সংশ্লিষ্টরা

মেক্সিকোর প্রধান কয়লা উৎপাদনকারী অঞ্চল কোহুইলা রাজ্যে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা শুক্রবার দ্বিতীয় রাতটিও উদ্বিগ্নভাবে কাটিয়েছেন। নিখোঁজদের একজনের বাবা জেসুস মিরেলেস রোমো বলেন, আমি চরম উদ্বিগ্ন, জানি না কী ঘটছে। তিনি তার সন্তানকে দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন।

ওই বাবা এএফপিকে বলেন, আমি বিশ্বাস করি আটকে পড়া শ্রমিকরা ভালোভাবে উদ্ধার হবে। তারা সবাই বেরিয়ে আসবে। এসময় তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন ও তার চোখ লাল হয়ে গিয়েছিল। নিখোঁজ সন্তানের মা ক্লডিয়া রোমো বলছেন, এটা আমার জন্য বেদনাদায়ক। কোনো বাবা-মা সন্তানকে কাছে পেতে আশা হারান না।

দুর্ঘটনার সময় পাঁচজন শ্রমিক পালাতে সক্ষম হয়েছিল। কিন্তু তারপর থেকে আর কাউকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। সরকার জানিয়েছে, মেক্সিকো সিটির প্রায় ১ হাজার ১৩০ কিলোমিটার উত্তরে ওই খনির অবস্থান। উদ্ধার অভিযানে ৩০০ জনেরও বেশি সৈন্য এবং অন্যান্য কর্মীরা যোগ দিয়েছেন।

উদ্ধার কর্মীরা রাতভর ফ্লাডলাইটের নিচে খনি থেকে পানি বের করে তাতে প্রবেশের চেষ্টা করে। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তিনটি খনির খাদ ৬০ মিটার গভীর এবং ভেতরে পানির গভীরতা ৩০ মিটার।

দুর্ঘটনা যেভাবে ঘটেছিল: প্রকৌশল বিশেষজ্ঞ গুইলারমো ইগলেসিয়াস বলেন, আটকে পড়া শ্রমিকদের উদ্ধার করা কঠিন। কারণ খনির ভেতরে কংক্রিটের কাজগুলো অত্যন্ত দুর্বল হয়ে যায়। এজন্য খনিটি ধসে পড়ে। তিনি স্থানীয় রেডিওকে বলেন, খনি শ্রমিকরা দুই মিটার পরিধির একটি খাদ খনন করছিল। বড় একটি প্লাস্টিকের নলের সাহায্যে তারা অক্সিজেন নিচ্ছিল। খননের সময় পাশের খাদটি পানিতে পরিপূর্ণ ছিল এবং তা শ্রমিকদের ওপর ধসে পড়ে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর