advertisement
আপনি পড়ছেন

তুরস্কের প্রেসিডেন্টের একজন শীর্ষ সহযোগী বলেছেন, মস্কোকে উপেক্ষা করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ইউক্রেনের যুদ্ধ শেষ করতে পারবে না। রাশিয়ার সাথে শক্তি দিয়ে নয় বরং আলোচনা ও কূটনীতির সাহায্যেই এই সংঘাত শেষ করতে হবে। খবর রয়টার্স।

us arms in ukraine 3ইউক্রেনে অস্ত্র দিয়েই যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের যোগাযোগবিষয়ক পরিচালক ফাহরেতিন আলতুন বলেছেন, সত্য কথা হচ্ছে, আমাদেরই কিছু বন্ধু চায় না ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ শেষ হোক। তারা কুমিরের চোখের জল ফেলছে। কাউকে নির্দিষ্ট না করেই তিনি অভিযোগ করেন, অনেকে তুরস্কের প্রচেষ্টাকে দুর্বল করার জন্য সক্রিয়ভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আলতুন বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কোনোভাবেই রাশিয়াকে উপেক্ষা করে ইউক্রেনের যুদ্ধ শেষ করতে পারবে না। কূটনীতি ও আলোচনার মাধ্যমেই এক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করা যাবে। ইউক্রেন-রাশিয়ার মধ্যে শস্য চুক্তির কথা উল্লেখ করে আলতুন মন্তব্য করেন, চুক্তিটি ন্যাটো সদস্য তুরস্কের সাফল্য এবং কূটনীতির মাধ্যমেই এ সাফল্য এসেছে।

war in ukraine cannot be ended by ignoring russiaতুরস্ক: রাশিয়াকে উপেক্ষা করে যুদ্ধ শেষ করা যাবে না

উল্লেখ্য, সিরিয়া, লিবিয়া ও আজারবাইজান ইস্যুতে দুই দেশের মধ্যে মতভিন্নতা থাকলেও তুরস্ক ও রাশিয়া অনেকদিন ধরেই মিত্র হিসেবেই পরিচিত।

ইউক্রেন ও রাশিয়া উভয়ের সাথেই তুরস্কের তুলনামূলক ভালো সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু পশ্চিমা বিশ্ব যখন রাশিয়ার হামলার সমালোচনা করে ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহ করেছে এবং মস্কোর উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে, তখন আঙ্কারা পশ্চিমাদের সাথে দ্বিমত পোষণ করে পৃথক অবস্থান গ্রহণ করে।

তুরস্ক সে সময় জানিয়েছিল, আমরা কারো সাথেই সম্পর্ক ছিন্ন করবো না বরং আমরা রাশিয়া ও ইউক্রেনের সাথে তুরস্কের সম্পর্ককে কাজে লাগাতে চাইছি, যাতে একটি গ্রহণযোগ্য সমাধানের দিকে এগিয়ে যাওয়া যায়।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর