আপনি পড়ছেন

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বিমান হামলা অব্যাহত রয়েছে। এতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪ জনে, যার মধ্যে অন্তত ৬ শিশু। এ পর্যন্ত আহত হয়েছেন ২১৫ জন। হামলায় গাজায় অনেক বাড়িঘর মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। ২৩ লাখ ফিলিস্তিনি সংকীর্ণ গাজা উপত্যকায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন। খবর টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

israel attack in gaza 1গাজায় ইসরায়েলি হামলা, ফাইল ছবি

একজন ইসরায়েলি সামরিক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, তাদের বাহিনী এক সপ্তাহ স্থায়ী অভিযানের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং সেনাবাহিনী বর্তমানে যুদ্ধবিরতির আলোচনা করছে না।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গতকাল শনিবার সর্বশেষ মৃত্যুর জন্য ইসরায়েলের আগ্রাসনকে দায়ী করেছে। সর্বশেষ নিহত ব্যক্তি একজন বয়স্ক নারী। কিন্তু ইসরায়েলি সরকারের একটি বিবৃতি জাবালিয়া শরণার্থী শিবিরে হামলার ঘটনাটি অস্বীকার করেছে। এই হামলায় শিশুরাও নিহত হয়।

palestine flag 1ফিলিস্তিনের পতাকা

ইসলামিক জিহাদের যোদ্ধারা ইসরায়েলের বাণিজ্যিক কেন্দ্র তেল আবিবে রকেট হামলা চালিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে। ইসরায়েলি বাহিনী যখন হামলা চালাচ্ছিল, তখনই তেল আবিবে কয়েকটি সালভো রকেট আঘাত হানে। তবে গুরুতর হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ইসলামিক জিহাদ গ্রুপ জানিয়েছে, গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহতদের মধ্যে তাদের সিনিয়র নেতা তাইসির আল জাবারিও রয়েছেন। এরপর থেকে প্রতিশোধ হিসেবে রকেট নিক্ষেপ করে তারা। মিশর জানিয়েছে, তারা পরিস্থিতি শান্ত করার জন্য আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।

গাজায় কঠোর অবরোধ: প্রায় ২৩ লাখ ফিলিস্তিনিকে সংকীর্ণ উপকূলীয় গাজায় অবরুদ্ধ করে রেখেছে ইসরায়েল। তারা ছিটমহলের ভেতরে ও বাইরে মানুষ এবং পণ্য চলাচলে সীমাবদ্ধতা সৃষ্টি করেছে। স্থল, সমুদ্র এবং নৌপথে অবরোধ আরোপ করেছে।

শুক্রবার একতরফাভাবে বিমান হামলার আগেই ইসরায়েল গাজায় জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ করে দেয়। ফিলিস্তিনি এলাকার একমাত্র বিদ্যুৎকেন্দ্র বিকল করে দেওয়া হয। দিনের প্রায় আট ঘণ্টাই বিদ্যুৎ সরবরাহ নেই। এভাবে চলতে থাকলে কয়েক দিনের মধ্যে হাসপাতালগুলোতে ভয়াবহ দুর্যোগ নেমে আসবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর