advertisement
আপনি পড়ছেন

ফ্রান্সে ভয়ংকর তাপপ্রবাহ চলছে। সাথে দেখা দিয়েছে স্মরণকালের ইতিহাসের নজিরবিহীন খরা। চলতি বছরের এটি চতুর্থ তাপপ্রবাহ। ন্যাশনাল ওয়েদার এজেন্সি মেটিও ফ্রান্স জানিয়েছে, দক্ষিণে শুরু হওয়া এই তাপপ্রবাহ সারাদেশে ছড়িয়ে পড়বে। তবে গত মাসের মতো তীব্র হবে না। খবর এপি।

france in midst of 4th heat wave amid historic droughtফ্রান্সে ভয়ংকর তাপপ্রবাহ, নজিরবিহীন খরা

আশঙ্কা করা হচ্ছে, সামগ্রিকভাবে ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত উঠতে পারে। পূর্ব ফ্রান্সের আল্পসের কাছে চার্ট্রুজ পর্বতমালায় দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। গরম আবহাওয়ার কারণে দমকল কর্মীরা দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছে না।

দাবানলে আক্রান্ত ১৪০ জনকে সরিয়ে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বেশ কয়েকটি অঞ্চলে রেকর্ড তাপমাত্রার মুখোমুখি হয়েছে বাসিন্দারা। আশঙ্কা করা হচ্ছে- তাপপ্রবাহে সয়া, সূর্যমুখী ও ভুট্টার উৎপাদন কমে যেতে পারে।

পানি সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে দিনের বেলায় সেচে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। ১০০টিরও বেশি পৌরসভা কলের মাধ্যমে পানীয় জল সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না। ট্রাকে করে পানি সরবরাহ জরুরি হয়ে পড়েছে।

তাপ শক্তি জায়ান্ট ইডিএফ কিছু পারমাণবিক কেন্দ্রে অস্থায়ীভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে। কারণ চুল্লি ঠান্ডা করতে নদীর পানি ব্যবহার করা হচ্ছিল।

ব্রিটেন, স্পেনেও ভয়াবহ দাবানল দেখা দিয়েছে।  হাজার হাজার বাসিন্দা ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ স্থানে সরে গেছে। পানিবাহী বিমান এবং অগ্নিনির্বাপক বাহিনী শুকনো অরণ্যে আগুনের সাথে লড়াই করতে হিমসিম খাচ্ছে।

স্পেনে দাবানলে দুজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই এই মৃত্যু।

উচ্চ তাপমাত্রা পুরো ইউরোপকে গ্রাস করেছে, পর্তুগাল থেকে বলকান পর্যন্ত দাবানল সৃষ্টি করেছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর