আপনি পড়ছেন

রাশিয়া অধিকৃত ক্রিমিয়ায় গতকাল মঙ্গলবার বিমান ঘাঁটির কাছে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। রুশ কর্তৃপক্ষ দাবি করছে, কোনো হামলা নয়, ভেতরে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একজন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। খবর আল জাজিরা।

smoke rises after explosions were heard from the direction of a russian military airbaseনোভোফেদরোভিকা বিমানঘঁটি থেকে ওঠা ধোঁয়ার কুণ্ডলী

২০১৪ সালে রাশিয়া ইউক্রেনের একটি অংশ ক্রিমিয়া দখল করে নেয়। সেখানকার নোভোফেদরোভিকা এবং সাকির সমুদ্রতীরবর্তী রিসোর্টের কাছাকাছি এলাকায় রাশিয়া একটি বিমান ঘাঁটি স্থাপন করে। বিস্ফোরণের আওয়াজগুলো সেখান থেকেই এসেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া কিছু ভিডিওতে দেখা গেছে, স্থানটি থেকে কালো ধোঁয়ার কুণ্ডলী বের হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তারা ক্রিমিয়ার পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত ওই বিমান ঘাঁটি থেকে বিকেল ৩টা ২০ মিনিট নাগাদ অন্তত ১২টি বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন। তাদের ধারণা, ইউক্রেনীয় বাহিনী সেখানে রকেট হামলা চালিয়েছে। 

russian military airbase in crimeaক্রিমিয়ায় রাশিয়ার একটি বিমানঘাঁটি

তবে বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করে রুশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ঘাঁটিতে বাইরে থেকে কোনো হামলা হয়নি। ভেতরে থাকা অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণ হয়েছে। এ ঘটনায় বিমান চলাচলের কোনো সরঞ্জাম ক্ষতিগ্রস্ত না হলেও একজনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে এবং অন্য পাঁচজন আহত হয়েছেন।

দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়, ইউক্রেনের সেনাবাহিনী এ হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেছে। তবে তাদের সে দাবির সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

২০১৪ সালে সামরিক অভিযান চালিয়ে ইউক্রেনের কাছ থেকে ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখল করে নেয় রাশিয়া। এরপর গণভোটের মাধ্যমে ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে নিজেদের মূল ভূখণ্ডের সাথে যুক্ত করে ফেলে রাশিয়া। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা চালালেও ক্রিমিয়া এ পর্যন্ত কোনো পক্ষেরই হামলার শিকার হয়নি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর