advertisement
আপনি পড়ছেন

মার্কিন বিচার বিভাগ দাবি করেছে, হোয়াইট হাউসের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা ও জাতিসংঘের সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত জন বোল্টনকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল ইরান। দেশটির শীর্ষ গার্ড কমান্ডার কাসেম সোলেইমানিকে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হয়েছিল। ইসলামিক বিপ্লবী গার্ড কর্পসের একজন সদস্যের বিরুদ্ধে অভিযোগও এনেছে যুক্তরাষ্ট্র। খবর এএফপি।

john bolton 1জন বোল্টন

গতকাল বুধবার মার্কিন বিচার বিভাগ দাবি করে, ৪৫ বছর বয়সী ইরানি নাগরিক শাহরাম পুরসাফি জন বোল্টনকে হত্যার জন্য এক ব্যক্তিকে তিন লাখ ডলার দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। পুরসাফি মেহেদি রেজায়ি নামেও পরিচিত।

বিচার বিভাগ জানায়, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইরানের বিপ্লবী গার্ডের এলিট কুদস ফোর্সের প্রধান এবং মধ্যপ্রাচ্যে তেহরানের প্রক্সি যুদ্ধের একজন স্থপতি কমান্ডার হিসেবে খ্যাতি পাওয়া কাসেম সোলেইমানিকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র। এর প্রতিশোধ হিসেবে জন বোল্টনকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। বিষয়টি যতদিনে প্রকাশ পায় ততদিনে বোল্টন হোয়াইট হাউসের দায়িত্ব থেকে সরে গিয়েছিলেন। বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ার পর এক টুইটে বোল্টন বলেন, আশা করি এটি হবে তেহরানে শাসন পরিবর্তনের প্রথম পদক্ষেপ।

kashem solaimanyশীর্ষ গার্ড কমান্ডার কাসেম সোলেইমানি

অভিযোগে বলা হয়, পুরসাফি ২০২১ সালের অক্টোবরে বোল্টনকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন। এ জন্য তখন তিনি অনলাইনে যুক্তরাষ্ট্রের একজন অজ্ঞাত ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করেন। এ কাজের জন্য প্রথমে দুই লাখ ৫০ হাজার ডলার দেওয়ার কথা বলা হলেও পরে ডলারের পরিমাণ তিন লাখে গিয়ে ঠেকে।

তবে পুরসাফি যাকে এ কাজের দায়িত্ব দিতে চাইছিলেন তিনি ছিলেন মার্কিন ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনের একটি সোর্স। পুরসাফির বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ আনা হয়। এগুলো প্রমাণিত হলে দুই তার দফায় ১০ ও ১৫ বছরের জেল হতে পারে।

এপ্রিল ২০১৮ থেকে সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত বোল্টন ডোনাল্ড ট্রাম্পের হোয়াইট হাউসে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ইরানের কঠোর সমালোচক এই ব্যক্তি ২০০৫-০৬ সাল পর্যন্ত জাতিসংঘে রাষ্ট্রদূত ছিলেন। ২০১৫ সালে তেহরান এবং প্রধান শক্তিগুলির মধ্যে যে পরমাণু চুক্তি হয়েছিল, তিনি তার তীব্র বিরোধিতা করেন।

পরবর্তী সময়ে ২০১৮ সালের মে মাসে চুক্তি থেকে ট্রাম্প প্রশাসনের একতরফা প্রত্যাহারকেও তিনি অকুণ্ঠ সমর্থন করেছিলেন। মার্কিন প্রশাসন ইরানের সাথে পরমাণু চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার যে চেষ্টা চালাচ্ছে তারও তীব্র বিরোধিতা করছেন তিনি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর