advertisement
আপনি পড়ছেন

গত এপ্রিলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছেন রস টেলর। দেশের জার্সি খুলে রাখার কয়েক মাসের মধ্যে বিস্ফোরক তথ্য দিলেন এই তারকা ক্রিকেটার। টেলর জানিয়েছেন, ব্ল্যাক ক্যাপসদের হয়ে খেলার সময় বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছেন তিনি। টেলরের এমন অভিযোগের পর বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড, এনজেডসি।

ross taylor 6আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছেন টেলর

মায়ের দিক থেকে টেলরকে পলিনেশিয়ান আদিবাসী হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সম্প্রতি নিজের আত্মজীবনী নিয়ে লেখা বই ‘রস টেলর ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট’-এ নিউজিল্যান্ড দলে খেলার সময়কার বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেছেন ৩৮ বছর বয়সী ক্রিকেটারর। এর সারাংশ প্রকাশ করেছে তাসমান পাড়ের দেশটির জনপ্রিয় প্রচারমাধ্যম ‘নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড’।

সতীর্থদের কাছ থেকে এমন আচরণের পর ভালো পারফর্ম করা অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিল টেলরের জন্য। আত্মজীবনীতে তিনি লেখেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট অনেকাংশে সাদা চামড়ার মানুষের খেলা। আমার ক্যারিয়ারের বেশিরভাগ সময় আমি ব্যতিক্রম ছিলাম। যেন সাদা রঙের মাঝে বাদামী কিছু একটা।’

nzc logoনিউজিল্যান্ড ক্রিকেট

‘আমার জন্য এটা অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিল। ক্রিকেটে পলিনেশিয়ান সম্প্রদায়ের খুব কম লোক প্রতিনিধিত্ব করছে। এটা সম্ভবত আশ্চর্যের ছিল না যে, লোকেরা অনেক সময় ধারণা করতো আমি মাওরি কিংবা ভারতীয়।’

রস টেলর বলেন, আমাকে অনেক সময় ড্রেসিংরুমে উপহাস করা হতো। একজন সতীর্থ আমাকে বলতো, ‘তুমি অর্ধেক ভালো রস। আমি বলতাম, কোন অর্ধেক? সে বলতা, তুমি জানো আমি কি বলতে চাচ্ছি।’ শুধু আমিই নই, অন্য খেলোয়াড়রাও তাদের জাতিসত্তা নিয়ে এমন মন্তব্যের শিকার হতো।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর