আপনি পড়ছেন

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে হামলার শিকার লেখক সালমান রুশদি ভেন্টিলেশন সাপোর্টে রয়েছেন। তিনি কথা বলতে পারছেন না। এমনকি তিনি একটি চোখ হারাতে পারেন। এসব কথা জানিয়েছেন লেখকের সহকারী আন্ড্রু ওয়াইলি। এক বিবৃতিতে ওয়াইলি বলেন, লেখকের সর্বশেষ অবস্থা ভালো নয়। খবর বিবিসি।

salman rushdie and the satanic versesনিজের বই হাতে সালমান রুশদি

বুকারজয়ী ঔপন্যাসিক সালমান রুশদি স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার নিউইয়র্কে ছুরি হামলার শিকার হন। একটি অনুষ্ঠানের মঞ্চে বক্তব্য দেওয়ার সময় তার ওপর হামলে পড়ে ছুরিধারী এক ব্যক্তি। তার গলায়, ঘাড়ে ও তলপেটে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। পরে হেলিকপ্টারে করে পেনসিলভানিয়ার একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ৭৫ বছরের রুশদিকে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় রুশদির সহকারী অ্যান্ড্রু ওয়াইলি বলেন, ‘সালমান সম্ভবত একটি চোখ হারাতে পারেন। ছুরিকাঘাতে তার বাহুর স্নায়ু বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তার পাকস্থলীতেও আঘাত লেগেছে।

salman rushdie attacked on lecture stage in new yorkছুরিকাঘাতের পর মঞ্চে পড়ে যান সালমান রুশদি

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হামলাকারীর মুখে কালো মাস্ক ছিল। তিনি দর্শকদের মধ্য থেকে বেরিয়ে মঞ্চে উঠে পড়েন ও রুশদির ওপর হামলা চালান। এ ঘটনায় হাদি মাতার (২৪) নামে ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক রুশদি ১৯৮১ সালে ‘মিডনাইটস চিলড্রেন’ উপন্যাস লিখে খ্যাতি অর্জন করেন। তার এই বইটির বিক্রি যুক্তরাজ্যেই ১০ লাখ কপি ছাড়িয়ে যায়।

১৯৮৮ সালে চতুর্থ উপন্যাস ‘দ্য স্যাটানিক ভার্সেস’ প্রকাশের পর বিপদে পড়েন লেখক রুশদি। উপন্যাসটিতে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করা হয়েছে বলে মনে করেন মুসলিমরা। এটি প্রকাশের পর থেকে হত্যার হুমকি পেয়ে আসছিলেন রুশদি। বিভিন্ন দেশ বইটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খোমেনি রুশদির মৃত্যুদণ্ডের ফতোয়া জারি এবং তার মাথার দাম হিসেবে ৩০ লাখ ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেন। এর জন্য দীর্ঘ ৯ বছর লুকিয়ে থাকতে হয়েছিল রুশদিকে। বর্তমানে তিনি নিউইয়র্কে বসবাস করছিলেন।

রুশদির ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর