আপনি পড়ছেন

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, অষ্টম মাসে প্রবেশ করতে যাওয়া ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের ব্যাপারে রাশিয়া সিরিয়াস নয়। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে গতকাল বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) একটি পূর্ব-রেকর্ড করা ভিডিও ভাষণে জেলেনস্কি এ কথা বলেন। খবর এএফপি।

zelenaskky 2জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ভাষণ দিচ্ছেন ভলোদিমির জেলেনস্কি

সবুজ টি-শার্ট পরা জেলেনস্কি তার বক্তব্যে বলেন, আমাদের ভূখণ্ড চুরির চেষ্টা করার অপারাধে, আমাদের হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করার দায়ে, আমাদের নারী-পুরুষদের নির্যাতন ও অপমান করার অভিযোগে রাশিয়ার শাস্তি দাবি করছে ইউক্রেন।

এ সময় রাশিয়াকে জবাবদিহির আওতায় আনার জন্য একটি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল এবং ক্ষতিপূরণ তহবিল গঠনের দাবি জানান জেলেনস্কি। তিনি বলেন, মস্কোকে নিজস্ব সম্পদ দিয়ে এই যুদ্ধের ক্ষতিপূরণ দেওয়া উচিত।

ukraine war 3অষ্টম মাসের দিকে যাচ্ছে ইউক্রেন যুদ্ধে

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে দেওয়া ওই ভাষণে জেলেনস্কি দাবি করেন, রাশিয়া বাস্তব আলোচনাকে ভয় পায় এবং আন্তর্জাতিক ন্যায্য বাধ্যবাধকতা পূরণ করতে চায় না।

এদিকে জাতিসংঘের এই অধিবেশনের আগে ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য আংশিকভাবে সেনা সমাবেশের ডাক দেন পুতিন। এতে তিন লাখ সেনা একত্রিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এবারই প্রথম রাশিয়া এ ধরনের কোনো সেনা সমাবেশ করতে যাচ্ছে।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ১৪ মিনিটের ভাষণে পশ্চিমাদের সতর্ক করে পুতিন বলেন, রাশিয়াকে রক্ষার ব্যাপারে তার পদক্ষেপ কোনো ‘ধাপ্পাবাজি’ নয়। পশ্চিমারা পারমাণবিক অস্ত্রের ভয় দেখাচ্ছে। তবে এর জবাব দেওয়ার জন্য মস্কোর হাতে প্রচুর অস্ত্রের মজুদ রয়েছে।

তবে সেনা সমাবেশের প্রতিবাদে রাশিয়ার বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। নিরাপত্তা বাহিনী ৩৮টি শহরে ১ হাজার ৩১১ জনকে আটক করেছে। এছাড়া সেনা সমাবেশের ঘোষণায় রাশিয়ার অনেক নাগরিক আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। ফলে রাশিয়া থেকে বিভিন্ন দেশের যাওয়া ফ্লাইটের ওপর চাপ বেড়ে যায়। হঠাৎ করেই এসব ফ্লাইটের টিকিটের দামও অনেকখানি বেড়ে যায়।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর