advertisement
আপনি পড়ছেন

উন্নত জীবনের আশায় সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে মৃত্যুবরণ থামছেই না। বৃহস্পতিবার সিরীয় উপকূলে শরণার্থীদের বহনকারী একটি নৌকা ডুবে ৭৩ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আজ শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) তাদের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে সিরিয়ার কর্তৃপক্ষ। খবর ফোর্বস।

syrian migrant boatসমুদ্রে প্রাণ হারানো স্বজনদের শনাক্ত করতে সিরিয়ার সীমান্তে লেবানিজদের ভিড়

সিরিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, লেবানন থেকে আসা শরণার্থী ও অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নৌকাটি বৃহস্পতিবার ভূমধ্যসাগরে সিরীয় উপকূলে ডুবে যায়। নৌকাটিতে ১২০ থেকে ১৫০ জন যাত্রী ছিল। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ওই ঘটনায় ৭৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবারই ৩৪ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিল সিরীয় কর্তৃপক্ষ।

এদিকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ২০ জনকে। তাদের তার্তাউসের বাসেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার্তাউসের গভর্নর আবদুল হালিম খলিল চিকিৎসাধীন শরণার্থীদের দেখতে হাসপাতালে যান।

বেঁচে ফেরা ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, লেবাননের মিনিয়েহ অঞ্চল থেকে মঙ্গলবার ১২০ থেকে ১৫০ জন যাত্রী নিয়ে নৌকাটি সাগরে পাড়ি জমায়। নৌকাটিতে লেবানিজ, ফিলিস্তিনি ছাড়াও অন্য কয়েকটি দেশের মানুষ ছিলেন।

তারা জানান, প্রবল ঝড়ো বাতাসের কারণে সমুদ্র উত্তাল ছিল। একপর্যায়ে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই নৌকাটি ডুবে যায়।

ডুবে যাওয়া নৌকায় ঠিক কতজন যাত্রী ছিলেন এবং তারা কোন দেশের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন, তাৎক্ষণিক সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সিরীয় কোস্টগার্ড সাগরে প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেই লাশের খোঁজে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

অর্থনৈতিক সংকটে পড়া লেবানন ছাড়তে সমুদ্রপথে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা সম্প্রতি বেড়েছে। ইউরোপে তুলনামূলক উন্নত জীবনের আশায় বিগত মাসগুলোতে হাজার হাজার লেবানিজ, সিরীয় ও ফিলিস্তিনি নৌকায় চড়ে বসেছেন। এতে সাগরে প্রাণহানিও বেড়েছে।

একটি ঘটনায় এতো মানুষের প্রাণহানি হওয়ায় লেবাননের উপকূলে নজরদারি কঠোর করার ঘোষণা দিয়েছেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী নাজিব মিকাতি। তিনি সেনা কমান্ডার জেনারেল জোসেফ আউনকে উপকূলে অবৈধ অভিবাসীদের সমুদ্র যাত্রা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এ ধরনের নৌযাত্রার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মিকাতি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর