আপনি পড়ছেন

সাফজয়ী আট নারী ফুটবলারকে বরণ করে নিয়েছে ময়মনসিংহবাসী; দেওয়া হয়েছে সংবর্ধনা। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় নগরীর জয়নুল আবেদিন পার্কের বৈশাখী মঞ্চে এসে উপস্থিত হন জেলার কলসিন্দুর গ্রামের এই কন্যারা। একে একে মঞ্চে ওঠেন সানজিদা আক্তার, মারিয়া মান্ডা, শামছুন্নাহার সিনিয়র, শামছুন্নাহার জুনিয়র, শিউলি আজিম, তহুরা খাতুন, সাজেদা আক্তার ও মার্জিয়া আক্তার।

reception to the 8 kalsindur girls who won in their districtনিজ জেলায় সাফজয়ী ৮ কলসিন্দুরকন্যাকে সংবর্ধনা

দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনা এ স্বর্ণজয়ী মেয়েদের দেখতে সংবর্ধনাস্থলে আসেন নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। আট ফুটবলারের হাতে ক্রেস্টসহ বিভিন্ন উপহার তুলে দেওয়া হয়। পুরস্কার হিসেবে গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদের পক্ষ থেকে দুই লাখ টাকা এবং প্রান্ত স্পেশালাইজড হাসপাতালের পক্ষ থেকে দেওয়া হয় আরও এক লাখ টাকা।

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ ও জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন যৌথভাবে এ সংবর্ধনার আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। বিভাগীয় কমিশনার মো. শফিকুর রেজা বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রেঞ্জ ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এহতেশামুল আলম, জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে এম দেলোয়ার হোসেন মুকুল প্রমুখ।

এর আগে, সড়কপথে বেলা সাড়ে ১১ টায় ময়মনসিংহে আসেন এ আট নারী ফুটবলার। জেলা সদরে প্রবেশ করার পর তাদের উঠানো হয় একটি পিকআপ ভ্যানে। সেই গাড়িতে করেই নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সার্কিট হাউজে পৌঁছান ফুটবলাররা। যাত্রাপথে সড়কের দুই পাশে হাত নেড়ে তাদের অভ্যর্থনা জানায় নগরবাসী। সার্কিট হাউজে কিছু সময় বিশ্রাম নিয়ে ঘোড়ার গাড়িতে করে সংবর্ধনাস্থলে যান দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করা ময়মনসিংহের আট ফুটবলার।

দীর্ঘ দুই মাস পর ঘরে ফিরে ময়মনসিংহবাসীর ভালোবাসায় সিক্ত হন সানজিদা-মারিয়ারা। অনুষ্ঠানে নিজের অভিব্যক্তি জানাতে গিয়ে সাফজয়ী বাংলাদেশ ফুটবল দলের মিডফিল্ডার সানজিদা আক্তার বলেন, ‘সাফ জেতার পর সবাই অপেক্ষা করছিল আমরা কখন নিজেদের শহরে আসবো কিংবা গ্রামে যাবো। ফাইনালি আজকে আমরা এসেছি। এসেই সংবর্ধনা পেলাম, হাজারো মানুষের ভালোবাসা পেলাম। এখানকার সবাই আমাদেরকে সাপোর্ট করে। আবারও এটি নিজের চোখে দেখলাম। সবমিলিয়ে খুবই ভালো লাগছে।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ বলেন, ‘সাফজয়ী নারী ফুটবল দলের ২৩ সদস্যের মধ্যে আটজন আমাদের ময়মনসিংহের, এটি অবশ্যই আনন্দের বিষয়। নারী ফুটবল দলের এই অনন্য কীর্তিতে দেশবাসী যেমন গর্বিত, তেমনি জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমিও আনন্দিত। এ অর্জন অদম্য স্পৃহা ও উজ্জীবিত তারুণ্যের বহি:প্রকাশ। তারা বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের মর্যাদা আরও বৃদ্ধি করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর