আপনি পড়ছেন

মুক্তিপণের বিনিময়ে মুক্তি পেয়েছেন কক্সবাজার টেকনাফের পাহাড়ি এলাকা থেকে অপহৃত হওয়া দুই কৃষক। তারা হলেন- কৃষক নজির আহমদ ও তার ছেলে মোহাম্মদ হোসেন। তাদের বাড়ি টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালী এলাকায়।

teknaf police stationটেকনাফ থানা পুলিশ স্টেশন

শনিবার (১ অক্টোবর) বিকেলে মুক্তি পাওয়ার পর বাড়িতে ফিরে আসেন বাবা-ছেলে। তাদের ছাড়িয়ে আনতে ৬ লাখ টাকা দিতে হয়েছে বলে জানায় পরিবার।

পরিবার ও স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বাবা-ছেলেসহ মোট ৫ জন কৃষক কাজ করছিলেন ক্ষেতে। এ সময় কয়েকজন রোহিঙ্গা অস্ত্রের মুখে তাদের জিম্মি করে পাহাড়ের দিকে নিয়ে যেতে থাকে। অপহরণের সময় তিনজন আহত হলে তাদের রেখে বাবা-ছেলেকে নিয়ে যায় তারা। স্থানীয়রা এসে আহত তিনজনকে উদ্ধার করে। পর অপহরণকারীরা ওই বাবা-ছেলের পরিবারের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ চায়।

অপহৃত হওয়া কৃষক নজির আহমদ জানান, অস্ত্রের মুখে অপহরণ করার পর তাদের খুব মারধর করেছে অপহরণকারীরা। টাকা দিয়ে ফিরে আসলেও এখন মামলা করবেন বলে জানান তিনি।

নজির আহমদ শ্যালক নুর মোহাম্মদ বলেন, ‘৬ লাখ টাকা মুক্তিপণ দেওয়া পর আমার বোনের স্বামী ও ভাগনেকে ছেড়ে দেয় অপহরণকারীরা। টাকার জন্য মারধর ও হত্যার হুমকিও দিয়েছিল তারা।’

তবে পুলিশ বলছে, গরু ব্যবসার লেনদেনকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নাছির উদ্দিন মজুমদার বলেন, ‘এটা মূলত অপহরণ নয়, গরু ব্যবসার লেনদেনকে কেন্দ্র করে ওই বাবা-ছেলেকে জিম্মি করা হয়েছিল। পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভুক্তভোগীরা থানায় এখনো মামলা করেননি। মামলা হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর