আপনি পড়ছেন

টানা প্রায় ছয় ঘণ্টা যানজটের পর বেলা আড়াইটার দিকে বিমানবন্দর সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। বেলা তিনটার দিকে ঢাকা মহানগর উত্তরা ট্রাফিক পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (ডিসি) নাবিদ কামাল ওই সড়কে যান চলাচল শুরুর তথ্য গণমাধ্যমকে জানান।

after six hours traffic on the banani airport road normal ছয় ঘণ্টা পর বনানী-বিমানবন্দর সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

এই কর্মকর্তা বলেন, দুপুরের মধ্যেই বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ড গোলচত্বরে জমে যাওয়া বৃষ্টির পানি সেচে অপসারণ করা হয়। এরপর যানজটে আটকে থাকা গাড়িগুলো চলতে শুরু করে। তবে এর আগে বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ডের দুই পাশে (ঢাকায় প্রবেশ ও ঢাকার বাইরে যাওয়ার রাস্তায়) দীর্ঘ যানজট লেগেছিল। বেলা আড়াইটার দিকে তা স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

ট্রাফিক পুলিশ জানায়, রাজধানীতে ভোরে র্দীঘ সময় বৃষ্টি হওয়ায় বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ডে পানি জমে যায়। ফলে উভয় পাশে দীর্ঘ যানজট লাগে। পরে আড়াইটার দিকে এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে।

রোববার (২অক্টোবর) ভোরের বৃষ্টিতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ডের গোলচত্বর এলাকায় হাঁটুপানি জমে যায়। এতে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজধানীর বনানী থেকে বিমানবন্দর এলাকায় তিন ঘণ্টা কেউ বা চার ঘণ্টা যানজটে আটকা পড়েন। আবার ঢাকায় ঢোকার মুখে আবদুল্লাহপুর থেকে বিমানবন্দরা পর্যন্ত যানজট হয়।

গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুরের বোর্ডবাজার থেকে বিমানবন্দর এবং বনানী থেকে টঙ্গীর চেরাগ আলী পর্যন্ত তীব্র যানজটের সুষ্টি রয়েছে। যানজটে আটকে থাকা অনেক যাত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে (ফেসবুকে) বলেন, কেউ কেউ দুই থেকে তিন ঘণ্টা একই জায়গায় বাসের ভেতর বসে থাকার কথা, কেউ আবার বনানী থেকে উত্তরা পর্যন্ত হেঁটে রওনা দেওয়ার কথা বলেন।

বেলা পৌনে একটার দিকে ঢাকা মহানগর উত্তরা ট্রাফিক পুলিশের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছিল, বিমানবন্দর এলাকায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের কারণে এমনিতেই মহাসড়ক অনেক সরু। এরমধ্যে বৃষ্টির পানি রাস্তায় পানি জমে থাকায় চালকরা খানাখন্দ ও গর্ত বুঝতে পারেনি। এই পরিস্থিতিতে ঢাকায় প্রবেশ ও ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার পথে দুই পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

উত্তরায় ৫ নম্বর সেক্টরের একটি কাপড়ের প্রদর্শনী কেন্দ্রে বিক্রয়কর্মীর কাজ করেন সজীব রুরাম। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লেখেন, ‘জীবনের সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত কাটাচ্ছি (বনানী থেকে উত্তরা হেঁটে যাচ্ছি)।’

রাজধানীর উত্তরার আজমপুর এলাকায় থাকেন শ্যাম সাগর মানখিন। মোহাম্মদপুরের শেখেরটেকের উদ্দেশে রওনা দিতে বাসা থেকে বের হন সকাল আটটায়। তিনি বলেন, ‘আজমপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে বাসে উঠি সকাল সাড়ে আটটার দিকে। বাসে উঠেই যানজটে আটকা পড়ি। পরের তিন ঘণ্টায় গাড়ি জসিমউদ্দীন বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছায়।

শ্যাম সাগর আরও বলেন, ‘পরে বাস থেকে নেমে রাইড শেয়ারিং নেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে পাওয়া যায়নি। তাই হেঁটে হেঁটে বিমানবন্দর বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত আসি। সেখান থেকে আবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে অন্য একটি বাসে উঠি।’

রাজধানীর বারিধারা থেকে চার ঘণ্টায় বিমানবন্দরে পৌঁছেছেন বলে ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন আজমির আহমেদ নামের এক ব্যক্তি।
আবদুল্লাহপুর ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পরিদর্শক মো.সাজ্জাত হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় বিআরটি প্রকল্পের গর্ত-খানাখন্দে বৃষ্টির পানি জমে থাকায় কোনো গাড়ির স্বাভাবিক গতিতে গাজীপুর অংশে ঢুকতে পারেনি। আবার বিমানবন্দর এলাকায় সড়কে বৃষ্টির পানি জমায় গাজীপুর থেকেও কোনো গাড়ি ঠিকমতো ঢাকায় ঢুকতে পারছে না। তাই সকাল থেকেই মানুষ খুব কষ্ট করছে। আমরাও চেষ্টা করছি যান চলাচল স্বাভাবিক করতে।’

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর