আপনি পড়ছেন

ইলন মাস্কের মালিকানায় টুইটারে গণহারে কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন এর প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক সিইও জ্যাক ডরসি। বলেন, আমার ওপর অনেকেই রেগে আছেন। সবার এমন পরিস্থিতির জন্য আমি নিজেই দায়ী, তার জন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি।

jack dorsey 1টুইটারের প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক সিইও জ্যাক ডরসি

রোববার এক টুইট বার্তায় জ্যাক ডরসি বলেন, টুইটারের কর্মীরা দাঁত কামড়ে থাকা স্বভাবের। পরিস্থিতি যতই বাজে হোক না কেন, তারা কোনো পথ খুঁজে বের করবেই।

টুইটারের পরিচালনার দায়িত্ব যেন ইলন মাস্ককে দেওয়া হয়, শুরুতে সমর্থন জানিয়েছিলেন টুইটারের সাবেক এই কর্মকর্তা। ‘আমি টুইটারের অধিগ্রহন ব্যর্থ হতে দেব না, এ জন্য যা যা দরকার, তাই করব। মানবতার জন্যই এটি দরকার,’ মাস্ককে পাঠানো বার্তায় এমনটাই বলেছিলেন ডরসি।

জ্যাক ডরসি ২০০৬ সালে টুইটার প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই এর শীর্ষ নির্বাহী ছিলেন জ্যাক। ২০২১ সালের নভেম্বরে পরাগ আগারওয়ালের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করে টুইটার থেকে সরে যান তিনি।

মার্কিন পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে বলা হয়, টুইটারের চাকরিচ্যুত অনেক কর্মী তাদের বর্তমান অবস্থার জন্য সাবেক সিইও জ্যাক ডরসিকে দায়ী করেছেন। কর্মীদের ভাষ্য, জ্যাক নিজের ক্যারিয়ারের ব্যাপারে যদি আর একটু মনযোগী হতেন, তাহলে তাকেও টুইটার ছাড়তে হতো না, কর্মীরাও এমন অবস্থায় পড়তেন না।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর