আপনি পড়ছেন

ইংল্যান্ড এবং পাকিস্তানের মধ্যকার ফাইনাল দিয়ে গতকাল পর্দা নেমেছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। যেখানে বাবর আজমদের ৫ উইকেটের পরাজিত করে শেষ হাসি হেসেছে জস বাটলার অ্যান্ড কোং। সদ্য সমাপ্ত এই টুর্নামেন্টের সেরা একাদশ ঘোষণা করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল, আইসিসি। যেখানে জায়গা হয়নি কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটারের।

memorable ben stokesবেন স্টোকসদের জন্য অ্যালবামে বাঁধিয়ে রাখার মতো মুহূর্ত

বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ঘেরা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যতিক্রম ছিলেন তাসকিন আহমেদ। বল হাতে টুর্নামেন্টজুড়ে আলো ছড়িয়েছেন ঢাকার এই তারকা পেসার। পাঁচ ম্যাচে তার শিকার আট উইকেট। বল হাতে মিতব্যয়ী থেকে বাংলাদেশের জেতা দুটি ম্যাচেই সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন তাসকিন। এরপরও সেরা একাদশে জায়গা হয়নি তার।

ছয়টি দলের ক্রিকেটার নিয়ে সেরা একাদশ সাজিয়েছে আইসিসি। যেখানে চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড, রানার্সআপ পাকিস্তান ছাড়াও আছে ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে এবং নিউজল্যান্ডের ক্রিকেটার। একাদশের নেতৃত্বে আছেন ইংলিশদের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান জস বাটলার। তার সাথে জায়গা পেয়েছেন অ্যালেক্স হেলস, মার্ক উড এবং ফাইনাল ও টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় স্যাম কারান।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেরা একাদশে ভারত এবং পাকিস্তান থেকে আছেন দুইজন করে ক্রিকেটার। এছাড়া জিম্বাবুয়ে, নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে একজন করে ক্রিকেটার জায়গা পেয়েছেন। দ্বাদশ ক্রিকেটার হিসেবে সেরা একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন ভারতের তারকা সিমিং অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া।

এক নজরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেরা একাদশ: জস বাটলার (অধিনায়ক/ উইকেটকিপার) (ইংল্যান্ড), অ্যালেক্স হেলস (ইংল্যান্ড), বিরাট কোহলি (ভারত), সূর্যকুমার যাদব (ভারত), গ্ল্যান ফিলিপস (নিউজিল্যান্ড), সিকান্দার রাজা (জিম্বাবুয়ে), শাদাব খান (পাকিস্তান), স্যাম কারান (ইংল্যান্ড), এনরিখ নর্টজে (দক্ষিণ আফ্রিকা), মার্ক উড (ইংল্যান্ড), শাহিন শাহ আফ্রিদি (পাকিস্তান)।

দ্বাদশ ক্রিকেটার: হার্দিক পান্ডিয়া।