আপনি পড়ছেন

ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল গত সেপ্টেম্বরে রাশিয়ান ফেডারেশনের সাথে যুক্ত করেন পুতিন। এসব অঞ্চলে মস্কো ৮০ হাজারের বেশি পাসপোর্ট ইস্যু করেছে। রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা গতকাল বৃহস্পতিবার মস্কোর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে। দখলীয় ওই চারটি অঞ্চল হলো- খেরসন, জাপোরিঝিয়া, দোনেৎস্ক এবং লুহানস্ক। অঞ্চলগুলো রাশিয়ার সাথে যুক্ত করার আগে সেখানে গণভোটের আয়োজন করে রুশ কর্তৃপক্ষ। এএফপির খবর।

russian passport 1সেই ৪ অঞ্চলে ৮০ হাজার রাশিয়ান পাসপোর্ট ইস্যু

রাশিয়ান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অভিবাসন কর্মকর্তা ভ্যালেন্টিনা কাজাকোভা বলেছেন, আইন অনুসারে ৮০ হাজারের বেশি মানুষ রাশিয়ান ফেডারেশনের পাসপোর্ট পেয়েছেন। পাসপোর্টগুলো স্বাভাবিক প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তৈরি করা হয়েছে। নাগরিকরা রাশিয়ার আইন অনুযায়ী সকল সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

পুতিন ক্রেমলিনে আনুষ্ঠানিকভাবে ওই চার অঞ্চলকে রাশিয়ান ফেডারেশনে যুক্ত করেন, যদিও এখন অঞ্চলগুলোতে রুশ বাহিনীর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেই। খেরসনের বিরাট অংশ কিয়েভ বাহিনী সম্প্রতি পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়। রাশিয়া সেখান থেকে সেনা প্রতাহার করারও ঘোষণা দেয়। এরপর ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ঘোষণা দেন, রুশ বাহিনীকে ইউক্রেন থেকে না তাড়ানো পর্যন্ত কিয়েভ বাহিনী থামবে না।

জাতিসংঘ ইউক্রেনের ভূমি দখলের নিন্দা করেছে এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে রাশিয়ার দখলীয় অঞ্চলকে স্বীকৃতি না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। এরপর থেকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেন দখলীয় অঞ্চল পুনরুদ্ধারে চাপ বাড়ায়। এরপর বাধ্য হয়ে নভেম্বরের প্রথম দিকে মস্কো খেরসন থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে। খেরসন শহরটি ওই অঞ্চলের প্রধান শহর ও একমাত্র আঞ্চলিক রাজধানী।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে সামরিক অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে ক্রেমলিন ইউক্রেনীয়দের জন্য রাশিয়ান নাগরিকত্ব পাওয়া সহজ করে দিয়েছে। ইউক্রেনীয় পাসপোর্টধারীদের রাশিয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য কাজ ও বসবাস করার অনুমতি দিয়েছে। এর আগে ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া দখল করেছিল রাশিয়া। পরে অঞ্চলটি রুশ ফেডারেশনের সাথে যুক্ত করে।

কিয়েভবাহিনী যখনই রুশ বাহিনীকে চাপে ফেলে, তখনই পাল্টা জবাব দেয় রাশিয়া। খেরসন থেকে রাশিয়ান বাহিনীকে হটিয়ে দেওয়ার পর থেকে কিয়েভে বৃষ্টির মতো মিসাইল ঝরাচ্ছে মস্কো। কিয়েভের জ্বালানি ও বিদ্যুৎ অবকাঠামোয় হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। বর্তমানে শহরটির ৬০ শতাংশ বাড়িতে বিদ্যুৎ নেই বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর