আপনি পড়ছেন

পুরো দিন কাজ করে রাতে বাসায় ফিরে ঘুমাতে যাচ্ছিলেন তারা। হঠাৎ করে এসএমএস ও ইমেইলের বরাতে তারা জানলেন, তাদের আর পরের দিন অফিসে যেতে হবে না। কারণ দুই হাজার ৭০০ কর্মীর সবাইকে ছেঁটে ফেলেছে ইউনাইটেড ফার্নিচার ইন্ডাস্ট্রিজ (ইউএফআই) কর্তৃপক্ষ। খবর নিউ ইয়র্ক পোস্ট।

ufi workerইউএফআই কর্মীরা মাঝরাতে জানতে পারেন, তাদের চাকরি নেই

রোববার প্রকাশিত এ খবরে বলা হয়, কানাডার একটি সংস্থার জন্য সস্তায় সোফা ও চেয়ার তৈরি করে আমেরিকার মিসিসিপি রাজ্যের একটি আসবাব সংস্থা ইউএফআই। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি তাদের সমস্ত কর্মীকে ইমেইল ও এসএমএসে জানায়, অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে আপনাদের জানাচ্ছি যে অপ্রত্যাশিত ব্যবসায়িক পরিস্থিতিতে বোর্ডের ডিরেক্টরের নির্দেশে সংস্থার সমস্ত কর্মীকে ছাঁটাই করা হচ্ছে। অবিলম্বে এ ঘোষণা কার্যকর হবে। পরবর্তী আরেকটি মেইলে কর্মীদের প্রদেয় সব ধরনের সুযোগসুবিধাও বাতিল করেছে বলে জানায় ইউএফআই।

প্রতিষ্ঠানের এমন সিদ্ধান্তে মাথায় হাত পড়েছে কর্মীদের। তারা অভিযোগ করছে, কোনো কারণ না দেখিয়ে বা সময় না দিয়েই তাদের ছাঁটাই করা হচ্ছে। এমনকি প্রতিষ্ঠান থেকে ছাঁটাইকালীন কোনো ধরনের সুযোগ সুবিধা দেবে না বলেও জানিয়েছে, যা সম্পূর্ণ অন্যায্য ও অন্যায়।

জানা গেছে, ২০ বছর ধরে তারা ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। এর পরে হঠাৎ করেই তারা সংস্থার কাজকর্ম বন্ধ করে দেয়। এমনকি ওই সময় যে সব গাড়িচালক বিভিন্ন জায়গায় পণ্য ডেলিভারি দিতে বেরিয়েছিলেন, তাদেরও ফিরে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়। এর আগে গত গ্রীষ্মেই সংস্থার সিইও, চিফ ফাইনান্সিয়াল অফিসার এবং সেলসের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্টকেও রাতারাতি সরিয়ে দিয়েছিল ইউএফআই।

সংস্থার এ ধরনের কাজে বেশ হতাশ কাজ হারানো কর্মীরা। তারা বলেন, আমরা দিনরাত চোখ বুজে কোম্পানির জন্য খেটে গেছি। এখন আমাদের সাথে তাদের এ ধরনের আচরণ অন্যায়। মিসিসিপির বাসিন্দা তোরিয়া নিল নামে এক কর্মী এরই মধ্যে সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছেন। এই সংস্থায় ৮ বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করা তোরিয়ার দাবি, কোনও রকম নোটিশ বা ক্ষতিপূরণ ছাড়াই তাদেরকে চাকরিচ্যুত করেছে কোম্পানি।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর