আপনি পড়ছেন

মহামারি করোনায় পর্যুদস্ত যুক্তরাষ্ট্রে এবার হানা দিয়েছে বার্ড ফ্লু। এই ভাইরাসে দেশটিতে চলতি বছরে ৫ কোটির বেশি মুরগী-টার্কির মৃত্যু ঘটেছে। এতে দেশটিতে মুরগী ও ডিমের দাম কিছুটা বেড়ে গেছে। শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই নয়, যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপ, আফ্রিকা ও এশিয়ার কিছু দেশে এবার এভিয়ান ফ্লুর রেকর্ড প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়েছে। খবর বিবিসি।

bird flue usযুক্তরাষ্ট্রে বার্ড ফ্লু মড়কে ধ্বংস হয়ে গেছে পোল্ট্রি শিল্প

যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচার (ইউএসডিএ) জানিয়েছে, এভিয়ান ফ্লুর ভয়ানক প্রাদুর্ভাবে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ৫০ মিলিয়নেরও বেশি পাখি মারা গেছে। চলতি বছর মুরগী ও টার্কির মৃত্যু ২০১৫ সালের মড়ককে ছাড়িয়ে গেছে।

ইউএসডিএ আরও জানায়, চলতি বছর দেশের ৪০টির বেশি স্টেটে বার্ড ফ্লু ছড়িয়ে  পড়েছে। বিগত বছরগুলোর চেয়ে এবার দ্বিগুণেরও বেশি স্টেটে প্রাদুর্ভাব ঘটেছে।

বার্ড ফ্লু মূলত বুনো পাখির পালক, মল ইত্যাদির  মাধ্যমে গৃহপালিত পাখির মধ্যে ছড়ায়।

ইউএসডিএর প্রধান ভেটেরিনারি কর্মকর্তা রোজমেরি সিফোর্ড বলেন, বুনো পাখি নিজেরা বিচরণের সঙ্গে অত্যন্ত প্যাথোজেনিক এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ছড়িয়ে দিতে থাকে। তাই মুরগী ও টার্কি রক্ষার জন্য গৃহপালিত পাখি ও  বুনো পাখির মধ্যে যোগাযোগ ঠেকানো জরুরি।

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে কোটি কোটি মুরগীর মৃত্যু হলেও রোগটি মানুষের জন্য কম ঝুঁকির। তারপরও কর্তৃপক্ষ বলেছে, আক্রান্ত মুরগী থেকে সতর্ক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) বলেছে, সাধারণ জনগণের জন্য ঝুঁকি কম থাকলেও বার্ড ফ্লু থেকে আমেরিকানদের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

সিডিসির বিবৃতিতে বলা হয়, বুনো পাখির সঙ্গে মানুষকে সরাসরি যোগাযোগ এড়াতে হবে। বিশেষ করে আক্রান্ত পাখির সংস্পর্শ এড়াতে হবে।

এদিকে এভিয়ান ফ্লু থেকে মুরগীর মৃত্যুর কারণে যুক্তরাষ্ট্রে থ্যাঙ্কসগিভিং ছুটির আগে ডিম ও টার্কির দাম বেড়ে যায়।

আমেরিকান ফার্ম ব্যুরো জানিয়েছে, গত বছরের তুলনায় এবার ঐতিহ্যবাহী থ্যাঙ্কসগিভিং উৎসবে মুরগী ও  টার্কির দাম ২১ শতাংশ বেড়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর