আপনি পড়ছেন

ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের বাস্তবধর্মী ছয়টি সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করার লক্ষ্য নিয়ে সিটিও ফোরাম বাংলাদেশ আয়োজন করে ‘সিটিও ফোরাম ইনোভেশন হ্যাকাথন’। এবারের আসরে চ্যাস্পিয়ন হয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের বিষয় ছিল, প্রযুক্তির ব্যবহারে কম খরচে কিভাবে ছাদে সবজি উৎপাদন করা যায়।

 mg 9249ইনোভেশনে চ্যাম্পিয়ন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

সোমবার রাতে সমাপনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

হ্যাকাথনে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রাম। তৃতীয় স্থান অর্জন করে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ। চতুর্থ ও পঞ্চম স্থান অর্জন করে বাংলাদেশ ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি এবং এ জেট টেকনোলজি।

হ্যাকাথনের আয়োজক প্রাতিষ্ঠান সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের সভাপতি তপন কান্তি সরকার বলেন, মেধাবী তরুণদের ভেতর থেকে উদ্ভাবনী আইডিয়া বের করে এনে জাতীয় স্বার্থে টেকসই প্রযুক্তি উদ্ভাবনে তরুণদের সৃজনশীলতাকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে আমাদের এই প্রচেষ্টা। আশা করছি, স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে এই উদ্যোগ কিছুটা হলেও কাজে আসবে।

এআইইউবি-এর প্রো ভাইস চ্যান্সেলর ড. আব্দুর রহমান বলেন, বিশ্বের কাছে ডিজিটাল হাবে পরিণত করতে এই ইনোভেশন হ্যাকাথন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। প্রযুক্তিনির্ভর আইডিয়া বাংলাদেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর এএইচএম জহিরুল হক, আইসিটি বিভাগের জয়েন্ট সেক্রেটারি মি. প্রণব সাহা, আয়োজনের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. সৈয়দ আখতার হোসেন ও ফেয়ার গ্রুপের সিইও মি. মোস্তাকিম দায়াং।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর