আপনি পড়ছেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অতি ডানপন্থী মিলিশিয়া ‘ওথ কিপার্স’-এর প্রতিষ্ঠাতা এলমার স্টুয়ার্ট রোডস ক্যাপিটল বিদ্রোহে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি এই বিদ্রোহ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। রিপাবলিক্যান পার্টির কিছু উগ্রপন্থী নেতাকর্মী সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থনে এই কাণ্ড ঘটায়। তারা ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ তুলে জো বাইডেনের বিজয়কে অস্বীকার করেছিল। টিআরটি ওয়ার্ল্ডের খবর।

stewart rhodes the founder of the oath keepersএলমার স্টুয়ার্ট রোডস

রোডসকে রাষ্ট্রদ্রোহী ষড়যন্ত্রের জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছে। বিচারে বলা হয়েছে, ষড়যন্ত্রটি ছিল হিংসাত্মক। ওয়াশিংটন ডিসিতে বিচারকরা দুই মাসব্যাপী বিচারকার্য পরিচালনা করেন। গতকাল মঙ্গলবার রোডসকে দোষী সাব্যস্ত করে রায় দিয়েছেন তারা। এই মিলিশিয়া গ্রুপটি যেকোনো মূল্যে ট্রাম্পকে ক্ষমতায় রাখার চেষ্টা করেছিল। এতে রোডসের ২০ বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

ওইদিন রোডস ক্যাপিটলের ভেতরে যাননি, তবে বাইরে থেকে একটি সশস্ত্র বিদ্রোহের প্রচেষ্টা চালিয়েছেন। চক্রান্তে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। চক্রান্তটি ওই নির্বাচনের পরই সক্রিয় হয়ে ওঠে। বিচারকদের হাতে আসা রোডসের রেকর্ড করার বার্তায় প্রকাশ পেয়েছে, কীভাবে রোডস তার অনুসারীদের সেদিন লেলিয়ে দিয়েছিলেন। সেদিন তাদেরকে একটি রক্তাক্ত গৃহযুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিতেও বলা হয়েছিল।

রোডস ও অন্য দুজন আসামি বিচারে আত্মপক্ষ সমর্থন করেন। তারা জিজ্ঞাসাবাদে জানান, ক্যাপিটলে আক্রমণ করার কোনো পরিকল্পনা তাদের ছিল না। ওথ কিপার্সের যারা সেদিন ক্যাপিটলে গিয়েছিল তাদের অপরাধী হিসেবে মনে করেন রোডস।

রোডসের পাশাপাশি আরও যারা দোষী সাব্যস্ত হয়েছে তারা হলেন, ওথ কিপার্স ফ্লোরিডার নেতা কেলি মেগস ও কেনেথ হ্যারেলসন এবং ভার্জিনিয়ার টমাস ক্যাল্ডওয়েল। আরও রয়েছেন ওহাইও মিলিশিয়ার নেতৃত্বদানকারী জেসিকা ওয়াটকিন্স।

২০০৯ সালে এলমার স্টুয়ার্ট রোডস ওথ কিপার্স মিলিশিয়া প্রতিষ্ঠিত করেন। তিনি একজন সাবেক আইনজীবী ও প্যারাট্রুপাস। প্রথমে তাদের সদস্য সংখ্যা ৫ হাজার মনে করা হলেও পরে মার্কিন কর্তৃপক্ষ জানতে পেরেছে তাদের সদস্য সংখ্যা ৩৮ হাজারেরও বেশি। গ্রুপটি তার সদস্যদের রাষ্ট্রীয় আদেশ অমান্য করতে উৎসাহিত করে এবং এর বেশিরভাগ সাবেক সেনা সদস্য।