আপনি পড়ছেন

মৃত্যুর প্রায় ৫০ বছর পরে নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে মার্শাল আর্ট কিংবদন্তি ব্রুস লি অত্যধিক পানি পান করার কারণে আকস্মিকভাবে অল্প বয়সে মারা গেছেন।

bruce leeমার্শাল আর্ট কিংবদন্তি ব্রুস লি

ব্রুস লি মাত্র ৩২ বছর বয়সে ১৯৭৩ সালের জুলাইয়ে হংকংয়ে মারা যান। ময়নাতদন্তে দেখা গেছে, সেরিব্রাল এডিমা বা মস্তিষ্কের ফোলাজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। তখন ধারণা করা হয়েছিল, ব্যথানাশক ওষুধের প্রতিক্রিয়ায় তার সেরিব্রাল এডিমা হয়েছিল। অবশ্য বিভিন্ন সময় তার মৃত্যুর জন্য বিভিন্ন তত্ত্ব হাজির করা হয়েছিল।

কেউ কেউ বলেছেন চীনা গ্যাংস্টাররা তাকে হত্যা করেছে। আবার কেউ কেউ দাবি করেছেন, তিনি হিটস্ট্রোকে মারা গেছেন।

সম্প্রতি গবেষকরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত পানি পানের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। গবেষণাটি ক্লিনিকাল কিডনি জার্নালের ২০২২ সালের ডিসেম্বর সংখ্যায় প্রকাশিত হয়েছে। এই গবেষণায় বলা হয়েছে, ব্রুস লি তার শরীরের প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত তরল গ্রহণ করেছেন। এর ফলে হাইপোনেট্রেমিয়া’য় মারা যান তিনি। এই অবস্থাটি ঘটে যখন একজন ব্যক্তির শরীরে পানির পরিমাণ রক্তের সোডিয়ামের মাত্রা কমিয়ে দেয়। এই অবস্থা প্রস্রাবের মাধ্যমে শরীর থেকে দ্রুত পানি বের হতে বাধা দেয়।

গবেষকরা উল্লেখ করেছেন, ব্রুস লি দীর্ঘদিন ধরেই অ্যালকোহল এবং ফলের রসের মত অতিরিক্ত তরল খাবারে অভ্যস্ত ছিলেন। এছাড়া তিনি গাঁজাও ব্যবহার করতেন। এর আগে মার্শাল আর্ট করতে গিয়ে তার কিডনি আহত হয়েছিল। এসব কিছু হাইপোনেট্রেমিয়ার ঝুঁকি তৈরি করেছে।

গবেষকরা উপসংহারে বলেছেন, ব্রুস লির বিখ্যাত উক্তি ছিল ‘পানি আমার বন্ধু’, কিন্তু অতিরিক্ত পানির কারণেই তাকে শেষ পর্যন্ত মরতে হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

সূত্র: সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর