আপনি পড়ছেন

জন্ম নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন এনে গত চার মাসে সাড়ে আট লাখ ‘মাতৃ ও পিতৃপরিচয়হীন’ ব্যক্তির নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে। এদের মধ্যে আছে পথশিশু, ভবঘুরে, পরিচয়হীন, বেদে, যৌনকর্মী, পথবাসী ও ঠিকানাবিহীন মানুষেরা।

birth registrationসাড়ে আট লাখ ‘পরিচয়হীন’ পেয়েছে জন্ম সনদ

আগে জন্ম নিবন্ধন করতে হলে মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক ছিল। এতে ভোগান্তিতে পড়তেন অনেকে। বিশেষ করে স্কুলে ছেলে মেয়েদের ভর্তির ক্ষেত্রে এ সমস্যায় পড়তেন অনেকে। এছাড়া মাতৃ ও পিতৃপরিচয়হীনদের জন্ম নিবন্ধনে সফটওয়্যারে কোনো সুযোগই ছিল না।

এ বিষয়ে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যালয়ের রেজিস্ট্রার জেনারেল বলেন, মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক রাখা হয়েছিল মূলত একটি ‘পরিবারের নিবন্ধন বিন্যাস’ তৈরির জন্য। কারণ আমরা দেখতে পেয়েছি, স্কুলে ভর্তির সুযোগ পেতে একজন সন্তানের ভিন্ন নাম ও বয়স দিয়ে কয়েকটি জন্ম নিবন্ধন করা হতো। মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক থাকলে বিষয়টা সহজে ধরা পড়ে।

কিন্তু গত ২০ জুলাই একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট সবাইকে জন্ম নিবন্ধন করার সুযোগ দেওয়ার নির্দেশ দেন।

এর পর গত ২১ নভেম্বর পর্যন্ত মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন তথ্য ছাড়াই ৩৪ লাখ ৫৬ হাজার ৭৫৭ জনের জন্ম নিবন্ধন করা হয়েছে। এর মধ্যে মা-বাবার ‘নামবিহীন’ জন্ম নিবন্ধন হয়েছে ৬ লাখ ৭২ হাজার ৯৫ জনের, মা-বাবা ‘নেই’ এমন জন্ম নিবন্ধন হয়েছে ১ লাখ ৬২ হাজার ৪৬৮টি, মা-বাবা ‘অজ্ঞাত’ এমন জন্ম নিবন্ধন হয়েছে ১১ হাজার ৯৪৯টি এবং মা-বাবা ‘অপ্রাপ্য’ এমন জন্ম নিবন্ধনের সংখ্যা ১৩০টি।

তবে মা-বাবার পরিচয় ছাড়া নিবন্ধিত ব্যক্তিদের মধ্যে কতজন পথশিশু, ভবঘুরে বা অন্যরা রয়েছেন তার সঠিক সংখ্যা বলা সম্ভব না বলে জানিয়েছেন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার জেনারেল সামিউল ইসলাম রাহাদ।

সহকারী রেজিস্ট্রার জেনারেল সামিউল ইসলাম রাহাদ বলেন, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন-২০০৪ এবং জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা-২০১৮ অনুসারে দেশের পথশিশু, ভবঘুরেসহ সবার জন্ম সনদ পাওয়ার অধিকার দেওয়া হয়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর