আপনি পড়ছেন

পেরুর কংগ্রেসের অস্থায়ী বিলুপ্তি ঘোষণা করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই গ্রেপ্তার হয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট পেদ্রো কাস্তিলো। বুধবার তিনি পুলিশের হাতে আটক হন। খবর আনাদোলু।

president pedro castilloপেদ্রো কাস্তিলো

বুধবার কাস্তিলো একটি টেলিভিশন ভাষণে দেশবাসীকে জানান, একটি নতুন সংবিধান অনুমোদনের জন্য তিনি কংগ্রেসের নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। এর কয়েক ঘণ্টা পরেই তিনি গ্রেপ্তার হন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত এক ভিডিওতে দেখা যায় কাস্তিলো পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে কাস্তিলোর এই ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানায় দেশটির রাজনৈতিক দলগুলো। এমনকি তার দল পেরু লিব্রেও তার এই পদক্ষেপের সমালোচনা করে। এছাড়া কাস্তিলোর ঘোষণার পরও দেশটির কংগ্রেস সদস্যরা আইনপ্রণেতারা তার বিপক্ষে অভিশংসনের জন্য ভোট দিতে থাকেন। কাস্তিলোর পরিবর্তে ডিনা বোলুয়ার্তেকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রস্তাব করা হচ্ছে।

এর আগেও কাস্তিলোর বিরুদ্ধে দুবার অভিশংসনের অভিযোগ আনা হয়। তিনি অপরাধী সংস্থা সম্পর্কিত অপরাধের অভিযোগে তদন্তের মুখোমুখি হচ্ছেন। তবে কাস্তিলো অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, দেশের একটি অর্থনৈতিক স্বার্থ গোষ্ঠী তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চাইছে।

গত কয়েক বছর ধরেই পেরুর রাজনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমশই ঘোলাটে হয়ে উঠছে। এ কারণে ২০১৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত দেশটি পাঁচজন প্রেসিডেন্ট পেয়েছে। সর্বশেষ গত বছর নির্বাচিত হয়েছিলেন কাস্তিলো। ২০২৬ সাল পর্যন্ত তার দায়িত্ব পালনের কথা রয়েছে। কিন্তু দুই বছর পূর্ণ না হতেই তার বিদায় ঘণ্টা বেজে উঠলো।

২০১৮ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট পেদ্রো পাবলো কুকজিনস্কিও অভিশংসন প্রস্তাবের মুখে পড়েছিলেন। তবে তিনি এতে ভোট নেওয়ার আগেই পদত্যাগ করেছিলেন।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর