আপনি পড়ছেন

সুইডেনের ন্যাটো সদস্য পদ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তুরস্ক সম্মতি না দিলে সুইডেন-ফিনল্যান্ডের পক্ষে ন্যাটোর সদস্য পদ পাওয়া সম্ভব হবে না। বিষয়টি জেনেও সুইডেন বারবার আঙ্কারার সাথে উত্তেজনা সৃষ্টি করছে। তুরস্কের দেওয়া শর্তের সমালোচনাও করেছেন সুইডেনের প্রেসিডেন্ট। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ন্যাটোতে যোগদানে আঙ্কারার দরকার হবে না। টিআরটি ওয়ার্ল্ড। 

turkiye swidenমাদ্রিদে সর্বশেষ ন্যাটো সম্মেলনে সুইডেন ও ফিলন্যান্ডের নেতাদের সাথে এরদোয়ান

স্টকহোমে পবিত্র কোরআনে আগুন দেওয়া, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের কুশপুত্তলিকা পোড়ানো, সবই স্টকহোমের উসকানিমূলক কর্মকাণ্ড হিসেবে মনে করছে আঙ্কারা। আর এতে দুদেশের মধ্যে দূরত্ব বেড়েই চলেছে। ফলে ন্যাটোর সদস্য পদ প্রশ্নে তুরস্ক বেঁকে বসতে পারে।

এর আগে তুরস্কের এক শিক্ষার্থীকে গবেষণা প্রকল্পে প্রত্যাখ্যান করেন এক সুইডিশ অধ্যাপক। এই ঘটনায়ও আঙ্কারা ক্ষুব্ধ। আঙ্কারার বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডে নেতৃত্ব দিয়েছে বিতর্কিত ডেনিশ অতিডান রাজনীতিবিদ রাসমুস পালুদান। তাকে সুইডিশ রাজধানীতে তুর্কি দূতাবাসের সামনে কোরআনের কপি পোড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়।

সাবেক শীর্ষ মার্কিন কূটনীতিক ম্যাথিউ ব্রাইজা বলেন, স্টকহোম ও আঙ্কারার সম্পর্ক এখন মারাত্মকভাবে হুমকির মুখে পড়েছে। সর্বশেষ ঘটনা ছিলো স্টকহোমের কোরআন পোড়ানোর অনুমতি দেওয়া। রাসমুস পালুদান একজন কুখ্যাত ইসলাম বিরোধী রাজনৈতিক নেতা।সুইডেনেও তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হয়েছে।

ব্রাইজা বলেন, বাক স্বাধীনতার নামে পবিত্র গ্রন্থ পোড়ানো কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এ ঘটনাটি সুইডেনের ন্যাটো সদস্যপদ পাওয়ার ক্ষেত্রে মারাত্মক কঠিন করে তুলেছে।

তুরস্কের বিরুদ্ধে গিয়ে সুইডেন-ফিনল্যান্ড মূলত ন্যাটোর চূড়ান্ত সদস্যপদ পাবে না বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, ন্যাটোর প্রাথমিক সদস্য দেশ তুরস্ক। ন্যাটোতে তুরস্কের ভেটো ক্ষমতা রয়েছে। ন্যাটোর দ্বিতীয় বৃহত্তম সেনাবাহিনী তুরস্কের। অথচ তুরস্কের দাবিকে অগ্রাহ্য করে স্টকহোম কুর্দি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী পিকেকের সদস্যদের প্রশ্রয় দিচ্ছে। তাদের সমাবেশ করতে দিচ্ছে। এটি তুরস্কের জন্য বড় উদ্বেগের বিষয়।

ইন্সটিটিউট ফর রাশিয়ান এবং ইউরেশিয়ান স্টাডিজ উপসালার সহযোগী অধ্যাপক গ্রেগরি সিমন্স মনে করেন, স্টকহোম তুরস্কের সাথে উত্তেজনা বৃদ্ধির অনুমতি দেয়, কারণ তারা একেবারেই অকেজো এবং মানসিকভাবে হীন। এমন কঠিন বিষয়গুলো পরিচালনা বা মোকাবেলা করার কোনো অভিজ্ঞতা তাদের নেই। নর্ডিক রাজ্যের রাজনীতিবিদদের ন্যাটোর অংশ হওয়ার জন্য পেশাদারিত্ব এবং কূটনৈতিক পরিপক্কতার অভাব রয়েছে।

গুগল নিউজে আমাদের প্রকাশিত খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন...

খেলাধুলা, তথ্য-প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষণ সহ সর্বশেষ খবর